এবার সহজপাঠ নিয়ে আলটপকা মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#কলকাতা: বাংলা দখল করতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। অথচ তাদের বাংলার নেতারাই বাংলার দুই আইকন রবীন্দ্রনাথ এবং বিদ্যাসাগরের মধ্যে গুলিয়ে ফেলেন। এবং প্রকাশ্যে আলটপকা, ভুলভাল তথ্য দিতেও পিছপা হচ্ছেন না তাঁরা। এই যেমন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রবীন্দ্রনাথের সৃষ্টিকে দিব্যি বিদ্যাসাগরের বলে চালিয়ে দিলেন তিনি।

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনা নিয়ে বিজেপি যে বেশ চাপে পড়েছে তা বলাই বাহুল্য। তাই মাঝেমধ্যেই তৃণমূলের দিকে মূর্তি ভাঙার দায় ঠেলছে তারা। আবার অন্য দিকে ভোটের ময়দানেও বিদ্যাসাগরকে নামানো হচ্ছে। যেমনটা করেছেন যাদবপুরের বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরা। ভোটের প্রচারের বিদ্যাসাগরের মতো একজনকে হাজির করে যথেষ্ট সমালোচনা কুড়োতে হয়েছে তাঁকে। এরই মধ্যে নতুন বিতর্কের সৃষ্টি করলেন দিলীপ। বিদ্যাসাগরের মাহাত্ম্য নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলে ফেলেন, “যার জন্য বিখ্যাত বিদ্যাসাগর, সহজপাঠ। সিপিএম সেটা তুলে দিয়েছিল, তৃণমূল কি সেটা চালু করেছে? বিদ্যাসাগরের প্রতি সম্মান থাকলে সহজপাঠকে কোর্সে রাখা হত।”

তবে শুধু দিলীপবাবুই নন, ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবও বাংলার আইকন নিয়ে ভুলভাল মন্তব্য করেছিলেন। গত বছর ২৫-এ বৈশাখের অনুষ্ঠানের দিন আগরতলায় বক্তৃতা রাখতে গিয়ে বিপ্লববাবু বেমালুম বলে দিয়েছিলেন, “জালিয়ানওয়ালাবাগের ঘটনার প্রতিবাদ করে নোবেল ত্যাগ করেছিলেন রবীন্দ্রনাথ।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের অবশ্য মত, বাঙালির মননে প্রবেশ করতে চাইলে আরও বেশি করে ‘বাঙালি’ হতে হবে বিজেপিকে। সেটা না হলে, রাজ্যে বিজেপির ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন অধরাই থাকতে পারে বলে মত অনেকের।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest