গাড়িতে লক্ষাধিক টাকা-সহ গভীর রাতে আটক ভারতী ঘোষ, উত্তেজনা পিংলায়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#পিংলা: ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে গত বৃহস্পতিবার রাতে লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার ঘিরে প্রবল চাঞ্চল্য ছড়াল রাজ্য-রাজনীতিতে। জানা গিয়েছে, ওই দিন রাত্রে ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে নগদ ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৮৯৫ টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, ভারতী যখন গাড়ি করে পিংলা দিয়ে যাচ্ছিলেন সে সময় তল্লাশি চালিয়ে ওই টাকা উদ্ধার করা হয়।

সূত্রের খবর, ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ খবর পান, পিংলায় এক বিজেপি প্রার্থীর বাড়িতে হামলা চালিয়েছে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা। ঘটনার সময়ে দাসপুরে ছিলেন তিনি। হামলার খবর পেয়ে দাসপুর থেকে পিংলা যান গাড়ি নিয়ে। রাতের দিকে ঝামেলা মিটিয়ে, ফের দাসপুর ফিরছিলেন তিনি।এমন সময়েই তাঁর পথ আটকে গাড়ি দাঁড় করায় পুলিশ। জানায়, নেত্রীর গাড়িতে প্রচুর নগদ টাকা রয়েছে বলে খবর আছে তাদের কাছে। তল্লাশি করতে চাইলে তাতে বাধা দেন একদা দুঁদে পুলিশ আধিকারি ভারতী। জোর করে গাড়ি তল্লাশি করে পুলিশ, তার পরে কিছু জিনিস আটক করে, ‘সিজার লিস্ট’ তৈরি করে, ভারতীকে বলে সই করে দিতে। ভারতী রাজি হননি। এই নিয়ে টানাপড়েন চলে ভোররাত পর্যন্ত। শেষমেশ সই না করেই চলে আসেন ভারতী।

অভিযোগ, পিংলা থানার মণ্ডল বার গ্রামে ভারতী ঘোষ ভোটারদের টাকা বিলি করতে গিয়েছিলেন। পুলিশ সেই টাকা উদ্ধার করে এবং ভারতী ঘোষ কে জিজ্ঞাসাবাদ করে। গ্রামেরই একটি বাড়িতে তাঁকে বসিয়ে কথা বলা হয় বলে জানা গিয়েছে। ভারতীর গাড়িতে সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি-তে যোগ দেওয়া পিংলার ব্লক নেতা গোবিন্দ হুই ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। তাঁর সঙ্গেও পুলিশ কথা বলছে বলে খবর।এ প্রসঙ্গে জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতির দাবি, ‘‘আমরা জানতাম, উনি টাকা ছড়িয়ে ভোট করার চেষ্টা করবেন, ওঁর পদ্ধতি এটাই। উনি রাতের অন্ধকারে টাকা বিলি করছিলেন। ওঁকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।’’ যদিও এ ব্যাপারে ভারতী সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, “গাড়িতে আমরা চার জন ছিলাম। ফলে চার জনের কাছে মিলিয়ে দু’লক্ষ টাকা পর্যন্ত রাখতে পারি। এটা নির্বাচন কমিশনের চক্রান্ত”। ১ লক্ষ ১৩ হাজার টাকা দিয়ে ভোট হয় কি? এ নিয়ে সংবাদ মাধ্যমকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‘আইন আইনের পথে চলবে। পুলিশ তার কাজ করবে।’’

ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রে ভোট হবে আগামী রবিবার। তার দু’দিন আগে এই ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবই উত্তপ্ত হয়েছে পরিস্থিতি। ভোট পর্বের শুরু থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রে রয়েছেন ভারতী। সোনা প্রতারণা-সহ বিভিন্ন মামলায় নাম জড়িয়েছে তাঁর। আবার কয়েক দিন আগেই কেশপুরে গিয়ে উত্তরপ্রদেশ থেকে ছেলে এনে তৃণমূলকর্মীদের কুকুরের মতো মারার হুমকি দিয়েছেন ভারতী। এ বার টাকা পাচারের ঘটনায় নাম জড়িয়ে যাওয়ায় অস্বস্তি বাড়ল বিজেপি প্রার্থীর।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest