থানার ভিতরেই মহিলার চুলের মুঠি ধরে নির্মম ভাবে মার পুলিশের, ভাইরাল ভিডিও

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#নয়াদিল্লি: এক মহিলাকে থানার ভিতরেই পুলিশের নির্মম ভাবে মারের ভিডিও নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া উত্তাল। ওই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, শিশু কোলে নেওয়া ওই মহিলাকে চুলের মুঠি ধরে মারছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, এই হৃদয় বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের গ্বালিয়র রেল পুলিশ স্টেশনে। ভিডিওর শুরুতে দেখা যাচ্ছে, তিন মহিলাকে আটক করেছে পুলিশ। তিন জনের কাছেই রয়েছে একটি করে শিশু। কিন্তু মহিলা-শিশুকে আটক করা হলেও সেখানে কোনো মহিলা পুলিশ নেই। উল্টে প্রত্যেকেই পুরুষ। এর পর কোনো কিছু জিজ্ঞাসা করছে এক পুলিশ কর্মী। তার পরই বেধড়ক পেটানো হচ্ছে এক মহিলাকে।

একটা সময়, ওই মহিলারা কাঁদতে শুরু করেন।এরপর ওই পুলিশ অফিসার এক মহিলাকে লাঠি দিয়ে মারতে শুরু করেন। তার চুলের মুঠি ধরে টেনে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেন। এমনকি তাঁর পিঠে একাধিক বার লাঠি দিয়ে আঘাত করেন।কোলে বাচ্চা নিয়েই ওই মহিলা নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা চালিয়ে যান। এরপর ওই পুলিশ অফিসার তাদের ব্যাগ থেকে ছড়িয়ে পড়া জিনিসপত্র কুড়িয়ে নিতে ইঙ্গিত করেন। জিনিসপত্র কুড়ি নিয়ে ব্যাগে ঢোকাতে শুরু করেন মহিলারা। ভিডিওতে দেখা যায় আরও তিন পুলিশ কর্মী রেয়েছেন সেখানে। তাঁদের মধ্যে অন্তত একজনকে রীতিমতো হাসতে হাত নেড়ে কিছু বলতেও দেখা যায়।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পরই বিতর্ক তুঙ্গে। যদিও গ্বালিয়র রেল পুলিশ জানিয়েছে, ভিডিওটি দু’বছরের পুরনো। এমন কোনও ভিডিও আছে, সে বিষয়ে তারা অবগতও ছিল না। একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, যে আধিকারিককে ভিডিওতে দেখা গিয়েছে তিনি এখন ভোটের কাজে বাইরে রয়েছেন। তিনি ফিরলে এ বিষয়টি জানতে চাওয়া হবে। কিন্তু ভিডিও পুরনো হোক বা নতুন, ঘটনাটি যে সত্যি ঘুরপথে সে সত্যই প্রমাণিত হয়েছে রেল পুলিশের বক্তব্যে। যা নিয়েই চলছে চরম তোলপাড়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest