স্বস্তি! প্রবল বৃষ্টি সঙ্গে নিয়ে হানা দিল কালবৈশাখী

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#কলকাতা: তীব্র দাবদাহের হাত থেকে কিছুটা স্বস্তি মিললেও, আদ্রতাজনিত অস্বস্তিকর আবহাওয়ায় এখনও হাঁসফাঁস করছে গোটা দক্ষিণবঙ্গ। গত কয়েক দিনের তুলনায় সোমবার রোদ্দুরের তেজ অনেকটাই কম ছিল। এরই মধ্যে স্বস্তির খবর, সন্ধ্যার পর দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায় ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টিও হতে পারে। ফলে তাপমাত্রা আরও কিছুটা কমবে।

ফণী চলে যাওয়ার পর থেকেই ক্রমশ পারদ বাড়ছিল দক্ষিণবঙ্গে। প্রবল গরমের জেরে তাপপ্রবাহের কবলে পড়তে হয় দক্ষিণবঙ্গকে। পশ্চিমাঞ্চলের পারদ উঠে যায় ৪০ ডিগ্রির ওপরে। অন্য দিকে প্রবল অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে কাহিল হতে হয়েছে কলকাতা এবং পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের মানুষকে। এই অবস্থায় চাতকপাখির মতো বৃষ্টির দিকেই তাকিয়ে ছিলেন মানুষ।

অবশেষে বৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সোমবার দুপুরের পর থেকে বজ্রগর্ভ মেঘ তৈরি হতে শুরু করে ঝাড়খণ্ডের ছোটোনাগপুর মালভূমি অঞ্চলে। ধীরে ধীরে সেই মেঘ এগিয়ে আসছে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলির দিকে। এর প্রভাবে মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, দুই বর্ধমানে সোমবার সন্ধ্যার মধ্যেই কালবৈশাখী ঝড়ের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে কলকাতার ভাগ্য এখনও ঝুলে রইলেও সম্ভাবনা বাড়ছে। সব কিছুই নির্ভর করছে এই বজ্রগর্ভ মেঘের গতিপ্রকৃতির ওপরে। সেই মেঘ কলকাতার অভিমুখে এলেই শহরে ঝড়বৃষ্টি হবে। সেটা বোঝার জন্য আরও অন্তত এক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest