‘দুর্গাপুজো সময়ে হবে, প্রয়োজন হলে মহরম পিছিয়ে দিন’, প্রচারে এসে প্ররোচনামূলক মন্তব্যে যোগীর

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#বারাসত: ভোটপ্রচারে এসে দুর্গাপুজো এবং মহরম নিয়ে মন্তব্য করে নয়া বিতর্কের জন্ম দিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ তিনি জানান, তিথি অনুযায়ী দুর্গাপুজোর সময় পিছোনো যাবে না৷ তবে দরকার হলে মহরমের সময় পরিবর্তন করাই যায়৷ উত্তরপ্রদেশেই নাকি এইভাবে পুজো এবং মহরমের ক্ষেত্রে সামঞ্জস্য রেখেছিলেন যোগী৷

দুর্গাপুজোর বিসর্জনের তিথি এবং মহরমের তাজিয়া বেরনোর সময় একইসঙ্গে পড়ে গিয়েছিল৷ যাতে কোনও অশান্তির পরিস্থিতি তৈরি না হয় তাই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মহরমের দিন শুধুমাত্র বনেদি বাড়ির প্রতিমা বিসর্জন হবে৷ তাও বিকেলের মধ্যে৷ এরপর রাস্তায় বেরোবে মহরমের তাজিয়া৷ তার ঠিক পরেরদিন বিসর্জন হবে বারোয়ারি পুজোর প্রতিমা৷ বুধবার সেই ইস্যুকে হাতিয়ার করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ধর্মীয় মেরুকরণের রাজনীতি করার অভিযোগে সরব হলেন যোগী৷ তিনি বলেন, ‘‘দুর্গাপুজো এবং মহরম প্রায় একসঙ্গে পড়ে গিয়েছিল৷ উত্তরপ্রদেশ, বাংলাতেও তাই ছিল৷ উত্তরপ্রদেশে সবাই বলল কীভাবে পুজো হবে? যখন হওয়ার কথা তখনই পুজো হবে৷ প্রয়োজন হলে মহরমের তাজিয়া বেরনোর সময় বদলে দিন৷’’ বারবারই সাম্প্রদায়িক মেরুকরণের রাজনীতির অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে৷ ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, যোগীর এদিনের মন্তব্য যেন বিরোধীদের দাবিকেই সিলমোহর দিল৷

প্রসঙ্গত, দুর্গাপুজোর বিজয়া এবং মহরম একই সময় পড়ে যাওয়া বিশৃঙ্খলা এড়াতে রাজ্য সরকার স্থির করেছিল মহরমের দিন শুধুমাত্র বনেদি বাড়ির প্রতিমা বিসর্জন হবে৷ এবং তা করতে হবে ওই দিন বিকেলের মধ্যে। তার পরই রাস্তায় বের হবে মহরমের তাজিয়া৷ তবে পরের দিন থেকেই আবার প্রতিমা বিসর্জনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল বারোয়ারি পুজোগুলিকে। এ নিয়ে সাময়িক দ্বিমতের সৃষ্টি হলেও সে ভাবে কোনো বড়োসড়ো বিশৃঙ্খলা ঘটেনি। সেই ইস্যুতেই ফের সরব হলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি দিয়ে গেলেন তাঁর নিজস্ব নিদানও।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest