ফণী আতঙ্কে বিকেল থেকেই বাতিল একাধিক লোকাল ট্রেন, বিক্ষোভ নিত্যযাত্রীদের

কলকাতা: ফণীর প্রভাবে শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে রাজ্যের অধিকাংশ জেলায়। তার জন্য আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে শিয়ালদহ শাখায় বহু ট্রেন বাতিল করল পূর্ব রেল।

আপাতত শুক্রবার মধ্যেরাত পর্যন্ত ট্রেনগুলি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে শনিবারও পরিষেবা বন্ধ রাখা হতে পারে। এই ট্রেন বাতিলের ফলে চূড়ান্ত দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। এর প্রতিবাদে বারাসাত স্টেশনে দীর্ঘক্ষণ রেল অবরোধ করেন যাত্রীরা।বাতিল করা হয়েছে ৮টি শিয়ালদহ-ক্যানিং লোকাল, ৭টি ক্যানিং-শিয়ালদহ লোকাল, ৬টি শিয়ালদহ-ডায়মন্ড হারবার লোকাল, ৪টি ডায়মন্ডহারবার শিয়ালদহ লোকাল, ৮টি শিয়ালদহ-লক্ষ্মীকান্তপুর, ৬টি লক্ষ্মীকান্তপুর-শিয়ালদহ লোকাল। লক্ষ্মীকান্তপুর-নামখানা শাখায় আপ-ডাউন মিলিয়ে মোট ১৩টি ট্রেন বাতিল হয়েছে। শিয়ালদহ-বারাসত-হাসনাবাদ শাখায় বাতিল ১০টি লোকাল ট্রেন। এই তালিকাতেই রয়েছে শিয়ালদহ-বারুইপুর-লক্ষ্মীকান্তপুর, বারুইপুর-লক্ষ্মীকান্তপুর লোকালও।

ফণীর প্রভাবে দক্ষিণ ভারত-ওড়িশা-পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের ১০০টিরও বেশি দূরপাল্লার ট্রেন বাতিল হয়েছে। শনিবার আরও কিছু ট্রেন বাতিল হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তবে পূর্ব রেলের হাওড়া শাখার কোনো ট্রেন বাতিল করা হয়নি যদিও এখানে একটি প্রশ্ন উঠছে, যে ঘূর্ণিঝড়ের গতিপথে দক্ষিণ ২৪ পরগণার থেকেও বেশি প্রভাব পড়ার কথা বাঁকুড়া, বর্ধমানে। ফলে এই রকম ভাবে ট্রেন বাতিল করে দেওয়া কতটা যুক্তিযুক্ত।