বিতর্কিত প্রচারপত্র ইস্যুতে আপ নেতৃত্বকে মানহানির নোটিশ পাঠালেন গম্ভীর

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#নয়াদিল্লি: কুরুচিকর প্রচারপত্র ছড়ানোর অভিযোগ আগেই অস্বীকার করেছিলেন। তা নিয়ে এ বার আম আদমি পার্টি (আপ) নেতৃত্বকে আইনি নোটিস ধরালেন প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা পূর্ব দিল্লির বিজেপি প্রার্থী গৌতম গম্ভীর। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির মেয়ে, আইনজীবী সোনালি জেটলির মাধ্যমে শুক্রবার দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীওয়াল, তাঁর ডেপুটি মণীশ সিসৌদিয়া এবং পূর্ব দিল্লির আপ প্রার্থী অতিশী মারলেনাকে মানহানির নোটিস পাঠিয়েছেন গম্ভীর। তাতে, অভিযোগ তুলে নিতে বলা হয়েছে তাঁদের। সেই সঙ্গে ‘ভিত্তিহীন অভিযোগ’-এর জন্য ক্ষমাও চাইতে বলা হয়েছে। অন্যথায় কেজরীওয়ালদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন গম্ভীর।

পূর্ব দিল্লি কেন্দ্রের বিভিন্ন জায়গায় বৃহস্পতিবার একটি জাতিবিদ্বেষমূলক প্রচারপত্র মিলেছিল। এই কেন্দ্রের আপ প্রার্থী অতিশীকে নিয়ে আপত্তিকর এবং কুরুচিকর মন্তব্যে ভরা রয়েছে ওই প্রচারপত্র। এমনকি, অতিশীর বাবা-মাকে টেনেও কুকথা ছড়ানো চলছিল ওই প্রচারপত্রের মাধ্যমে। আপ কর্তৃপক্ষের নজরে আসতেই বিষয়টি নিয়ে সরব হন তাঁরা। বৃহস্পতিবারই মনীশ সিসোদিয়াকে পাশে বসিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছিলেন অতিশী। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, নিজের প্রচারপত্রে তাঁর সম্পর্কে অপমানজনক উক্তি করেছেন পূর্ব দিল্লির বিজেপি প্রার্থী গৌতম গম্ভীর। এমনকী কান্নায় ভেঙেও পড়েন তিনি। বলেন, ‘ওনারা দেখিয়ে দিয়েছেন ওনারা কতটা নিচে নামতে পারেন। প্রচারপত্রে ওনারা লিখেছেন যে আমি মিশ্র রক্তের অন্যতম উদাহরণ।‌’‌  সাংবাদিক সম্মেলনের মাঝেই কাঁদতে থাকা অতিশীকে সান্ত্বনা দিয়ে তাঁর পাশে বসা মণীশ শিসোদিয়া বলেছেন, এধরনের নিম্ন মানসিকতার শব্দবন্ধ পড়তে যে কেউই লজ্জা পাবেন। আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল অতিশীকে শক্ত থাকতে পরামর্শ দিয়ে টুইটারে গম্ভীরের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেছেন, গৌতম গম্ভীর যে এতটা নিচে নামতে পারেন তা তাঁর কল্পনাতীত। এই শাসকের রাষ্ট্রে মহিলারা কীভাবে নিরাপত্তা পাবেন সেই প্রশ্ন তুলেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী।

যদিও, আম আদমি পার্টির এই অভিযোগ পুরোপুরি খারিজ করে দিয়েছেন গম্ভীর। প্রাক্তন ক্রিকেটারের পালটা অভিযোগ, তাঁকে বদনাম করার জন্য নিম্নরুচির রাজনীতি করছেন কেজরিওয়াল। একটি টুইটে গম্ভীর পালটা দাবি করেন, “আমি আপনার এই লজ্জাজনক আচরণের নিন্দা করছি। একজন মহিলা, যে কিনা আপনারই সহকর্মী। তাঁর সম্ভ্রমকে আপনি এভাবে রাজনীতির খেলায় নামাচ্ছেন। আপনার নোংরা মানসিকতা পরিষ্কার করতে আপনার ঝাড়ুটারই প্রয়োজন। আমি চ্যালেঞ্জ করছি, যদি আমার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে আমি এখনই প্রার্থীপদ প্রত্যাহার করে নেব। আর যদি না পারেন তাহলে আপনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন তো?” এখানেই থেমে থাকেননি বিজেপি প্রার্থী। তিনি একটি টুইট করে আরও লিখেছেন, “আমি লজ্জিত এমন একজন লোক আমার মুখ্যমন্ত্রী।”

তবে ক্ষমা চাওয়ার কোনও প্রশ্নই ওঠে না বলে ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছেন মণীশ সিসৌদিয়া। গম্ভীরের পাঠানো নোটিস সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান, ‘‘প্রচারপত্রে যে ভাষার প্রয়োগ করেছেন গৌতম গম্ভীর, তা অত্যন্ত জঘন্য। পড়তে গেলেও লজ্জাবোধ হয়। এর পরেও আমাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস হয় কী করে ওঁর? মানহানির মামলাই বা করছেন কোন যুক্তিতে? বরং মানহানি তো আমাদের হয়েছে! ওর বিরুদ্ধেই মানহানির মামলা করব আমার। আজকের মধ্যেই নোটিস পাঠানোর চেষ্টা করব ওঁকে।’’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest