‘বিভাজনের হোতা’ খেতাবের জন্য মোদীকে শুভেচ্ছা বিজেপি যুব নেতার, টাইম প্রচ্ছদ নিয়ে বিড়ম্বনায় গেরুয়া শিবির

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#নয়াদিল্লি: ছবিতে চিন্তার ছাপ স্পষ্ট প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর, আর হেডলাইনে লেখা, ‘ইন্ডিয়া’স ডিভাইডার ইন চিফ, বিখ্যাত মার্কিন পত্রিকা ‘টাইম’ এর ২০ শে মে সংখ্যার প্রচ্ছদ নিয়ে দেশজুড়ে শোরগোল। এবার তাতে লাগল হাসির ছাপ।

সম্প্রতি প্রখ্যাত মার্কিন ম্যাগাজিন ‘দ্য টাইম’ এর কভার ছবিতে দেখা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। বিজেপির মেরুকরণের রাজনীতির সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনায় সরব প্রখ্যাত মার্কিন ম্যাগাজিন৷ কভার ছবিতে মোদীকে ‘বিভাজনের হোতা’ বলে কটাক্ষ করে আন্তর্জাতিক ম্যাগাজিনটি৷ পাশাপাশি, প্রকাশিত কভার স্টোরিতে ম্যাগাজিনটি প্রশ্ন তোলে, বিজেপির হিন্দুত্ববাদের রাজনীতি এবং মোদীর আমলে ভারতের অখণ্ডতা রক্ষার পদ্ধতির বিষয়েও৷ ওয়াকিবহাল মহলের মতে, নির্বাচনের মরশুমে আন্তর্জাতিক ম্যাগাজিনটির এই প্রতিবেদন অস্বস্তি বাড়াতে পারে বিজেপি নেতৃত্বের৷ এবং চাপে ফেলতে পারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে৷

এসব নিয়ে যখন গোটা দেশে কাটাছেঁড়া চলছে, তখনই হাস্যকর কাজ করে ফেললেন মোদীজির গুণমুগ্ধ ভক্ত তথা ঝাড়খণ্ড রাজ্য বিজেপির যুব নেতা উমেশ রঞ্জন সাহু। তিনি, এই প্রধান বিভাজক খেতাব পাওয়ার জন্যও মোদীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ফেললেন। ফেসবুকে রীতিমতো পোস্টার তৈরি করে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান উমেশ রঞ্জন। বিজেপি যুব মোর্চার ছোটনাগপুরের পর্যবেক্ষক উমেশ ফেসবুকে লেখেন, “বিখ্যাত মার্কিন পত্রিকাকে প্রধানমন্ত্রীকে ডিভাইডার ইন চিফ খেতাব দিয়েছে। এর জন্য পুরো দেশের তরফে আমরা প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানাই।” ফেসবুকে উমেশের এই পোস্ট নিমেষে ভাইরাল হয়ে যায়। নেটিজেনরা তাঁকে নিয়ে রীতিমতো রসিকতা শুরু করে দেন। নিজের ভুল বুঝতে পেরে পোস্টটি ডিলিট করে দিয়েছেন গেরুয়া শিবিরের ওই যুব নেতা। এ বিষয়ে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এটা ভুল করে পোস্ট করা হয়েছিল।

তবে শুধু উমেশ একা নন, আরও অনেকে মোদী ভক্ত সোচ্চারে জানিয়েছেন শুভেচ্ছা! যেমন একজন ট্যুইটারে লিখেছেন যেখানে, টাইম ম্যাগাজিন মোদীকে ‘ইন্ডিয়া’স ডিভাইডার ইন চিফ’ বলছে তখন দেশের বিরোধীরা তাঁকে স্বৈরাচারী বলে অভিযোগ করছেন! আর একজন ট্যুইটে লিখেছেন, পাকিস্তানি মুসলিম লেখক হওয়া সত্ত্বেও আতিশ তাসির ভূয়সী প্রশংশা করেছেন নরেন্দ্র মোদীর।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest