‘পছন্দের’ তালিকা থেকে ভারতকে বার করে দিল আমেরিকা, এবার থেকে ভারতীয় পণ্যের উপর লাগু হবে শুল্ক

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#ওয়াশিংটন: বাণিজ্যের কারণ ‘পছন্দের’ তালিকা থেকে ভারতকে বার করে দিল আমেরিকা। জানাল, কয়েক মাস ধরেই এই বিষয়ে ভাবনাচিন্তা হওযার পরে, শেষমেশ ভারতকে সরানোর ব্যাপারে ‘ডান ডিল’ করল তারা। মার্কিন প্রশাসন সূত্রের খবর, ভারতের নব-নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বাণিজ্যিক লেমদেন এগোনোর ব্যাপারে আর ততটা উৎসাহ বোধ করছে না ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকার। বৃহস্পতিবারই এ কথা জানিয়ে দিয়েছে ওয়াশিংটন।

জেনারালাইজড সিস্টেম অফ প্রেফারেন্স (জিএসপি) কর্মসূচির আওতায় বেশ কয়েকটি দেশের পণ্যকে আমেরিকার বাজারে ঢুকতে দেওয়ার জন্য সেগুলির উপর কোনও শুল্ক চাপানো হয় না। ফলে, সেই সব পণ্য অনেক কম দামে আমেরিকার বাজারে কিনতে পারেন ক্রেতারা। বিদেশি পণ্য আমদানির ক্ষেত্রে এই কর্মসূচি মার্কিন মুলুকে বৃহত্তম ও প্রাচীনতম। এই কর্মসূচিতে ভারতীয় পণ্য সবচেয়ে বেশি সুবিধা পেয়েছিল ২০১৭ সালে। ওই বছর ৫৭০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের ভারতীয় পণ্যাদি ঢুকেছিল মার্কিন বাজারে, যার উপর কোনও শুল্ক চাপানো হয়নি। এত দিন গাড়ি তৈরির যন্ত্রাংশ ও বস্ত্র উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচা মাল-সহ দু’হাজার ভারতীয় পণ্য সেই সুবিধা পেত। কিন্তু গত ৪ মার্চ শেষাশেষি ট্রাম্প প্রশাসন সিদ্ধান্ত নেয়, ভারতীয় পণ্যগুলির উপর থেকে সেই সুবিধা তুলে নেওয়া হবে। কারণ, ভারতের বাজারে ঢোকা মার্কিন পণ্যগুলির উপর শুল্ক চাপানো হয় ভারতে। সিদ্ধান্ত কার্যকর করার জন্য দু’মাস সময় দেওয়া হয়। যে সময়সীমা শেষ হয়েছে গত ৩ মে।

অনেকের আশা ছিল, প্রধানমন্ত্রী মোদীর নেতৃত্বে দ্বিতীয় এনডিএ সরকার আরও বেশি সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরে আসায় হয়তো মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ ব্যাপারে তাঁর সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে পারেন। কিন্তু গত কাল মার্কিন বিদেশ দফতরের পদস্থ কর্তাটি বলেন, ‘‘সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আর কোনও সম্ভাবনা নেই। ওটা ইতিমধ্যেই চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। এখন দেখতে হবে আমরা (ভারত ও আমেরিকা) কী ভাবে এগতে চাইছি, কী ভাবে কাজ করতে পারছি দ্বিতীয় মোদী সরকারের সঙ্গে।’’

সূত্রের খবর, ভারত যে যে কারণে আমেরিকার বাণিজ্যিক সুবিধাভুক্ত দেশের তালিকা থেকে বেরোতে বাধ্য হল, তাদের একটি হল গরু। হ্যাঁ, এমনটাই জানা গিয়েছে। মার্কিন ডেয়ারি প্রোডাক্ট ভারতে আমদানির ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ আলগা করার জন্য নরেন্দ্র মোদী সরকারকে অনেক বার অনুরোধ করেছে আমেরিকা। কিন্তু ভারত রাজি হয়নি কিছুতেই। এর কারণ হিসেবে ভারতের তরফে জানানো হয়েছে, আমেরিকান গরুগুলিকে তাগড়া বানানোর জন্য তাদের প্রায়ই গরুর রক্ত দিয়ে তৈরি হাইপ্রোটিন খাবার খাওয়ানো হয় বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু ভারতের বেশির ভাগ হিন্দু যে হেতু গরুর মাংস খান না, তাই তাঁদের ক্ষেত্রে আমেরিকার গরু থেকে তৈরি ডেয়ারিজাত দ্রব্য সেই দোষে দুষ্ট হবে। ডেয়ারি প্রোডাক্টগুলি ‘ননভেজ’ এবং গরুর রক্তের ছোঁয়ায় ভারতের জন্য অনুপযুক্ত হয়ে যাবে। এই কারণ দেখিয়ে, ডেয়ারি নিয়ে আমেরিকার বাণিজ্যের অনুরোধ বারবার খারিজ করেছে ভারত।

বাণিজ্যিক সুবিধা থেকে ছিটকে যাওয়ার একটি বড় কারণ সেটিও বলে মনে করছেন অনেকে। জানা গেছে, আগামী মাসের শেষ দিকে ওসাকা-তে ২০টি দেশের সম্মেলনে ডোনাল্ট ট্রাম্পের মুখোমুখি হবেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে এ ব্যাপারে কোনও কথা আলোচনা হয় কি না, সেটাই দেখার।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest