মুসলিম ছেলের সঙ্গে দিদি সুনয়নার প্রেম নিয়ে মুখ খুললেন হৃত্বিক

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#মুম্বই: কিছুদিন আগেই হৃতিকের বোন সুনয়না রোশন অভিযোগ করেন বাবা রাকেশ রোশন তাঁর প্রেমিককে মেনে নিচ্ছেন না। কারণ সুনয়নার প্রেমিক রুহেল আমিন মুসলিম ধর্মাবলম্বী। এমনকি তিনি এও জানান, রুহেলের সঙ্গে সম্পর্কে থাকার জন্য রাকেশ রোশন চড়ও মেরেছেন সুনয়নাকে। দাদা হৃতিকও এই বিষয়ে তাঁকে সাহায্য করেননি বলে জানান তিনি।

এতদিন এই বিষয়ে চুপ থাকলেও অবশেষে মুখ খুললেন হৃতিক রোশন। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “এটা সম্পূর্ণ ভাবে আমার পারিবারিক বিষয়। দিদির বর্তমান মানসিক পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে আমার কিছু বলা ঠিক হবে না। না জানি আমাদের মতো আরও কত পরিবার এই একই পরিস্থিতিতে রয়েছে, কিন্তু কিছু বলতে পারছে না। এই ধরনের বিষয়ের জন্য উপযুক্ত চিকিৎসার অভাব রয়েছে আমাদের দেশে। আর আমাদের পরিবারে ধর্মকে কোনওদিনই বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। আশাকরি সেটা সবাই এতদিনে বুঝে গিয়েছে।”

হৃতিক আরও বলেন, ‘‘ধর্ম আমার পরিবারে কোনও বড় বিষয় নয়। এটা নিয়ে কোনও আলোচনা হয় না। আসলে ধর্মকে সে ভাবে গুরুত্বই দেওয়া হয় না। আমার এটা বিশ্বাস করতে ইচ্ছে করে, গোটা পৃথিবীতেই হয়তো এ ভাবে ভাবা হয়।’’

কিন্তু কিছুদিন আগে সুনয়না অভিযোগ করেন, ‘‘এক মুসলিম ছেলেকে ভালবেসেছি বলে বাবা আমাকে চড় মেরেছিল। ওর নাম রুহেল। বাবা বলেছিল, রুহেল জঙ্গি। আমি বাবা-মায়ের বাড়ি থেকে বেরিয়ে আলাদা থাকতে শুরু করি। শুধুমাত্র মুসলিম বলে বাবা-মা ওকে মেনে নিচ্ছে না। ওরা আমার জীবনটা নরক করে তুলেছে।’’ ওই পরিস্থিতিতে ভাই হৃতিক রোশনকেও তিনি পাশে পাননি বলে অভিযোগ করেন সুনয়না। তাঁর দাবি, ‘‘হৃতিকের কোনও কথা বাড়িতে চলে না। আমার রিলেশনশিপ নিয়ে কেউই খুশি নয়। হৃতিক বলেছিল আমাকে একটা আলাদা বাড়িতে থাকার খরচ দেবে। কিন্তু লোখান্ডওয়ালায় আমার বাড়ি ভাড়া আড়াই লক্ষ টাকা ও দিতে চায়নি। বলেছে, টাকাটা অনেক বেশি। ওর কাছে আড়াই লক্ষ টাকা বেশি! সবাই হেনস্থা করেছে আমাকে।’’

এবিষয়ে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত ও তাঁর বোন রঙ্গোলি চান্দেলের কাছে সাহায্য চেয়েছিলেন তিনি। রঙ্গোলির একাধিক ট্যুইটের মাধ্যমেও এই কথাই জানা গিয়েছিল। তিনি বলেছিলেন সুনয়নার পরিবার তাঁর ওপর অত্যাচার করছে। তাই তিনি কঙ্গনার কাছে সাহায্য চেয়েছেন। সুনয়নার পরিবার তাঁর প্রেমিককে মেনে নিচ্ছে না। তাঁকে বাড়িতে আটকে রেখেছে।

সুনয়নার বিস্ফোরক সাক্ষাত্কারের পর রোশন পরিবারের সমালোচনা শুরু হয় বিভিন্ন মহলে। সাম্প্রতিক ভারতে সাম্প্রদায়িকতা নিয়ে বিভিন্ন সমস্যা দেখা যাচ্ছে। এই আবহে তথাকথিত শিক্ষিত বলে পরিচিত বলিউডের নামজাদা পরিবারের এ হেন আচরণ নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়। এক্ষেত্রে রোশন পরিবারের স্বপক্ষে যুক্তি দিয়ে মুখ খুলেছিলেন হৃতিকের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খান। বলেছিলেন, রাকেশ রোশন অসুস্থ এবং হৃতিকের মায়ের মানসিক অবস্থা ঠিক নেই। তাই সবার উচিত রোশন পরিবারকে গোপনীয়তা বজায় রাখতে দেওয়া।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest