মূর্তি ভাঙার তদন্তে সিট, ডায়মন্ড হারবারের এসডিপিও এবং আমহার্স্ট স্ট্রিটের ওসিকে সরিয়ে দিল কমিশন

#কলকাতা: বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার তদন্তে নামল কলকাতা পুলিশ। লালবাজারের পক্ষ থেকে গঠন করা হল বিশেষ তদন্তকারি দল।

লালবাজার সূত্রে খবর, ডিসি নর্থ এর তত্বাবধানে পাঁচ সদস্যদের তদন্ত কমিটি (সিট)গঠন করা হয়েছে ৷ ইতিমধ্যেই তদন্তকারীদের হাতে বিদ্যাসাগর কলেজে ঘটনার দিনের প্রায় ৫০টি ভিজিও ফুটেজ এসেছে৷ এছাড়া নতুন করে আরও ৬ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে৷ তাদের খোঁজ করছে পুলিশ৷ পুলিশ সেদিন রাতভর অভিযান চালিয়ে ৫৬ জনকে গ্রেফতার করেছে৷

সূত্রের খবর, ঘটনার পরে আমহার্স্ট স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন বিদ্যাসাগর কলেজের ছাত্রছাত্রীরা। পাশাপাশি, জোড়াসাঁকো থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরাও এফআইআর দায়ের করেছে৷ দু’টি এফআইআর জামিন অযোগ্য ধারায় করা হয়েছে৷ অভিযোগ, কলেজের মধ্যে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে দেওয়া থেকে শুরু করে মারধোর, শ্লীলতাহানি হয়েছে৷ যার সঙ্গে বিজেপির কর্মী সমর্থকেরাই যুক্ত বলে অভিযোগ৷ এমনকি সেখানে বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এর নামও রয়েছে৷ এমনটাই সূত্রের খবর৷

দুপুরে সিট গঠনেক পরেই এ দিন বিকেলে কমিশন আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার ওসি কৌশিক দাসকে সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেয়। কলকাতা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, তাঁর পরিবর্তে নতুন যিনি ওসির দায়িত্ব নেবেন, তিনি ওই সিটের সদস্য হবেন। একই সঙ্গে কমিশন এ দিন ডায়মন্ড হারবারের এসডিপিও মিঠুনকুমার দে-কেও দায়িত্ব সরিয়ে দিয়েছে।