মোহনবাগানের নতুন কোচ হলেন কিবু ভিকুনা,যাঁর ঝলমলে বায়োডেটা চোখ ধাঁধাবে আপনার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#কলকাতা: আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল মোহনবাগানে এবার বিদেশি কোচ আসতে চলেছে। শুক্রবারই সরকারিভাবে ক্লাবের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল হোসে অ্যান্টোনিও কিবু ভিকুনা নতুন মরশুমে সবুজ-মেরুনের কোচ হচ্ছেন। ইউরোপিয়ান ফুটবলে যথেষ্ট অভিজ্ঞ শেষ মরশুমে পোল্যান্ডের প্রথম ডিভিশন এক্সত্রালাক্সা-য় উইল্সা পোল্ক-এর দায়িত্বে ছিলেন। ২০১৩ সালে বিখ্যাত পোলিশ ক্লাব লেগিয়া ওয়ারশ-র হয়ে চ্যাম্পিয়নও হয়েছেন। যদিও সেই মরশুমে সহকারি কোচের ভূমিকায় ছিলেন তিনি।

বাগান সূত্রে খবর, কিবু ভিকুনা এর আগে স্পেন ও পোল্যান্ডের একাধিক ক্লাবের কোচিং করিয়েছেন। পোল্যান্ডের ক্লাব লেগিয়া ওয়ারশ’র হয়ে ২০১২-১৩ সালে তিনি পোলিশ লিগ ও পোলিশ কাপ জিতেছেন। লেচ পোজনান ক্লাবের হয়ে ২০১৫-১৬ সালে তিনি পোলিশ সুপার কাপ জিতেছেন। ১৯৮৬ সালে বিশ্বকাপ খেলা পোল্যান্ডের ফুটবলার ও বর্তমান কোচ ইয়ান আরবানের সহকারি হিসেবে অনেকদিন কাটিয়েছেন তিনি। ফলে তাঁর অভিজ্ঞতা অনেক, এমনটাই জানা গিয়েছে বাগানের তরফে। রাউল গার্সয়া, অ্যাজ্‌পেলইকুয়েটা, নাচো, জ্যাভি মার্টিনেজের মতো বিশ্ববিখ্যাত ফুটবলা তারকাদের কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে এই কিবু ভিকুনার। স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের কাছ থেকে প্রফেশনাল কোচিংয়ে একাধিক ডিগ্রি পেয়েছেন তিনি। এইসব ডিগ্রির মধ্যে প্রফেসর অফ ট্যাকটিক্স, মাস্টার অফ ফিজিক্যাল প্রিপারেশন প্রভৃতি অন্যতম।

মোহনবাগানের প্রেস বিবৃতিতে দুই শীর্ষ কর্তা দেবাশিস দত্ত ও সৃঞ্জয় বোস জানান, কিবু-র সঙ্গে আমরা আগেই কথা বলেছিলাম। উনি মোহনবাগানের দায়িত্ব নিতে আগ্রহী। মোহনবাগানের কোচ হওয়ার দৌঁড়ে অ্যাশলে ওয়েস্টউড থেকে আর্জেন্টাইন ফার্নান্দো স্যান্টিয়াগো ভ্যালেরার নাম ভেসে উঠেছিল। শেষ পর্যন্ত স্প্যানিশ বংশোদ্ভূত পোলিশ কোচকে বেছে নেওয়ার কারণ কী মোহনবাগানের শীর্ষকর্তারা জানাচ্ছেন, কিবু-র অভিজ্ঞতা, ফুটবল-বোধ এবং ইউরোপীয় সার্কিটে দক্ষতা প্রশ্নাতীত। মোহনবাগানের ফুটবল দর্শন সম্পর্কেও উনি বেশ ওয়াকিবহাল। কঠিন পরিশ্রমী। অনুশীলন ও ম্যাচে সর্বোচ্চ পর্যায়ের উদ্ভাবনী স্কিল দেখাতে পারবেন উনি। একারণেই ভিকুনা-র উপরেই আস্থা রাখা হয়েছে।

উয়েফা প্রো লাইসেন্স হোল্ডার ভিকুনা-র বায়োডেটা বাঁধিয়ে রাখার মতো। ২০১৫-১৬ সালে লেচ পোজনানের কোচিং স্টাফ হিসেবে পোলিশ সুপার কাপ জিতেছেন। ১৯৮৬-র বিশ্বকাপে পোল্য়ান্ডের হয়ে খেলা জান উরবানের সহকারী হিসেবেও কাজ করেছেন। পাশাপাশি, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্লে অফ রাউন্ডে লেগিয়া ওয়ারশ-র হয়ে কোচিং করেছেন। ২০১৩-১৪ সালে উয়েফা ইউরো কাপেও কোচিং করার অভিজ্ঞতা রয়েছে।

এর সঙ্গেই বিশ্ব ফুটবলের একাধিক তারকা- জাভি মার্টিনেজ, নাচো মনরিয়েলদের কোচ ছিলেন ওসাসুনা-য় থাকাকালীন। সবমিলিয়ে মোহনবাগানে কোচিং করিয়ে যাওয়া বাকি কোচেদের তুলনায় যে ভিকুনা-র সিভি যে অনেক উজ্জ্বল, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest