সামনে মাসেই ৭৬, সুমিত্রা মহাজনের টিকিট নিয়ে ‘শাঁখের করাত’ মোদী-শাহ’রা

নয়াদিল্লি: বিজেপিতে বৃদ্ধদের কোন জায়গা নেই। ৭৫ পেরোলেই রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নিতেই হবে। এই যুক্তিতে আডবানী -যোশীদের মত বিজেপির এককালের স্তম্ভগুলো আস্তে আস্তে ছেঁটে ফেলা হয়েছে কেবল বয়সের কথা বলে। এবার কি তাহলে সুমিত্রা মহাজনের পালা?

বর্তমানে সুমিত্রার বয়স ৭৫ বছর। সামনে মাসে তিনি ছিয়াত্তরের পা দেবেন। এখনও তাঁকে প্রার্থী করা হয়নি কোনও আসন থেকে। কানাঘুঁষোয় শোনা যাচ্ছে, আট বারের সাংসদ সুমিত্রা মহাজন যিনি আবার বর্তমান স্পিকার তাঁর সঙ্গে ঠিক কেমন রাজনৈতিক আচরণ করা উচিত তা নিয়ে ঘাম ঝরছে বিজেপির। স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে মুখে হাসি নিয়ে অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি। নরেন্দ্র মোদীর কাছের মানুষ বলে বিশেষ পরিচিতি রয়েছে সুমিত্রা মহাজনের। তবে বিশেষ কোন বিতর্কিত মন্তব্য করতে শোনা যায়নি তাঁকে। যদিও সংসদ পরিচালনায় মাঝে মাঝেই বিরোধীরা তাঁর বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনেছে। তবে সে অভিযোগ খুব গুরুত্বপূর্ণ নয়। বিরোধী বেঞ্চে থাকলে স্পিকারের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ বড়ই আটপৌরে। এমনিতে বিজেপির শিক্ষিত ও জনপ্রিয় মুখ গুলির মধ্যে সুমিত্রা মহাজন একজন। sumitra mahajan indore seat news mp 2019327 81216 27 03 2019

এখনও পর্যন্ত সুমিত্রাকে প্রার্থী না করায় জল মাপছে কংগ্রেস। সুমিত্রার আসনে কাকে প্রার্থী করে সেদিকে নজর রাখছে রাহুল গান্ধীর দল। তবে এর আগে এই ছেঁটে ফেলা নিয়ে এর আগে বিজেপিকে তেমন একটা চাপে পড়তে হয়নি। বাকিদের অতি অনায়াসে মার্গদর্শক বলে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে কিন্তু কাজের মানুষ সুমিত্রার বেলায় আটকে গিয়েছে বিজেপি। দলের অন্দরে চলছে আলোচনা।৭৫ পেরোনো সুমিত্রাকে টিকিট দেওয়া হলে দলের পুরোনোরা যে নতুন করে চোটে উঠবেন সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। প্রশ্ন উঠবে, বয়স ঠিক করে দেওয়ার নরেন্দ্র মোদী কে? কেনই বা তিনি একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে মার্গদর্শক বানিয়ে সাইডলাইনে বই রাখবেন? দলের অন্দরমহলের খবর, আগে থেকেই স্ক্রিপ্ট তৈরি করে রেখেছে মোদী বাহিনী। সুষমা স্বরাজ দাঁড়াচ্ছেন না। এটাকেই রেফারেন্স হিসেবে ব্যবহার করা হবে। বর্তমান বিদেশমন্ত্রী আগেই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি লোকসভা ভোটে লড়বেন না।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি রাকেশ সিং যে ইঙ্গিত দিয়েছেন তাতে মনে হচ্ছে এবার আর সুমিত্রার ভাগ্যে শিকে ছিঁড়বে না। যদিও নির্বাচনে লড়ার ব্যাপারে একপ্রকার স্থির করে ফেলেছেন বর্তমান স্পিকার। সেই বার্তাও তিনি পৌঁছে দিয়েছেন দলের শীর্ষস্তরে। সুমিত্রা হলেন বিজেপির হাতেগোনা কয়েকজন নেতাদের মধ্যে একজন যিনি এখনও নামের আগে চৌকিদার ব্যবহার করেননি। রবিবার ইন্দোরে বিজেপির পক্ষ থেকে আয়োজন করা হয়েছে ম্যায় ভি চৌকিদার নামক অনুষ্ঠানের। তাতে গরহাজির ছিলেন বর্তমান স্পিকার। এই অবস্থায় প্রাথী হিসাবে নাম ঘোষিত না হলে তিনি আদবানির মত নীরব থাকবেন নাকি যোশীজির মত সরব হবেন তা দেখতে আগ্রহী রাজনৈতিক মহল।