হাতে গিটার, গলায় ‘কাটমানি’, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল প্রতিবাদী নচিকেতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

#কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাউন্সিলারদের উদ্দেশে ‘কাটমানি’র টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিতেই জেলায় জেলায় শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। কোথায় কাউন্সিলারদের বাড়িতে চড়াও হচ্ছেন মানুষ তো কোথাও আবার কাটমানি খাওয়া কাউন্সিলারের বিরুদ্ধে টাকা ফেরত চেয়ে টাঙানো হচ্ছে ফ্লেক্স। সমসাময়িক এই ঝোড়ো ঘটনার উপরেই গান বাঁধলেন নচিকেতা। সোশ্যাল মিডিয়ায় দ্রুত ছড়াচ্ছে সেই গান- “আসছে দিন কাটমানি ফেরত দিন”।

সামাজিক-রাজনৈতিক ঘটনাপ্রবাহের উপর আধারিত গানের দৌলতেই এক সময় বাঙালির মন জিতে নিয়েছিলেন নচিকেতা। কিন্তু শেষ কয়েক বছরে তাঁর গলায় আর সেই ‘আগুন’ নেই বলেই দাবি করেন তাঁর ভক্তরাও। তবে শনিবার তাঁর কণ্ঠে ‘কাটমানি‘ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই ছড়িয়ে পড়ছে অতিদ্রুত।  চোয়াল শক্ত করে গাইলেন- মন্ত্রী অথবা আমলা/ জনরোষ এবার সামলা/ তুলবে চামড়া অসাধু দামড়া/ বাতাসে বাজছে রুদ্রবীণ- আসছে দিন। নচিকেতার এই গান-বোমা এখন বিরোধী শিবিরের অস্ত্র হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যে বাবুল সুপ্রিয় ধন্যবাদ জানিয়েছেন নচিকেতাকে। বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী টুইটারে লিখেছেন, ”মানুষের মনের কথা গানের মাধ্যমে সঠিক মাত্রার Sattire-এর তড়কা লাগিয়ে সকলের সামনে নিয়ে আসার জন্য নচিকেতা-দাকে আমার অশেষ ধন্যবাদ।”

প্রসঙ্গত, বেশ কয়েক বার মুখ্যমন্ত্রী মমতার প্রশংসা করতে শোনা গিয়েছিল নচিকেতাকে। স্বাভাবিক ভাবেই এই গান ফেসবুক-ইউটিউবে পোস্ট হতেই তাঁর রাজনৈতিক চিন্তাধারা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। কেউ কেউ প্রশ্ন তুলেছেন, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে তবে কি তাঁর তৃণমূল-মমতায় খামতি দেখা দিল? নচিকেতা যদিও সে তত্ত্ব মানতে রাজি নন। তিনি বলছেন, ‘‘আমি সততার পক্ষে। আমি সর্বদা পরিবর্তনের পক্ষে।’’ কোন পরিবর্তন? নচিকেতার কথায়, ‘‘দলীয় নেতাদের বিভিন্ন কাজকর্মে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাবমূর্তিতে একটা প্রভাব তো পড়ছিলই। মমতা এই কাটমানি ফেরত দেওয়ার কথা বলে নতুন একটা পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিলেন।’’

কিন্তু তাঁর এই গান তো তৃণমূলেরই সমালোচনা করছে। নেতা-মন্ত্রী-আমলা— কাউকেই ছাড় দেওয়া হয়নি। তবে কি তিনি অন্য মতাদর্শের খোঁজ পেয়েছেন? বাম থেকে তৃণমূল হয়ে বিজেপি? রীতিমতো রেগে গেলেন নচিকেতা: ‘‘দেখুন, আমার কোনও দল নেই। ছিলও না। আমি রাজনৈতিক দলের ঊর্ধ্বে। আমাকে রাজনৈতিক দলের তকমায় বেঁধে রাখা যায় না। এমন গান এই প্রথম লিখলাম, তেমন তো নয়। যখনই এমন পরিস্থিতি এসেছে আমি লিখেছি। সত্যি কথাটা জোর দিয়ে বলেছি।’’ তা হলে এখন কোন সত্যিটা বলতে চাইছেন? নচিকেতার জবাব, ‘‘তৃণমূলনেত্রী সঠিক রাস্তা নিয়েছেন। ওঁর কাঁধে বন্দুক রেখে সবটা চালাচ্ছিল এক দল লোক। তাঁদের আর দরকার নেই। মমতা একাই একশো। ওঁর এই সিদ্ধান্তে অনুপ্রাণিত হয়েই গানটা লিখলাম।’’

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest