২৬/১১ হামলার মাস্টারমাইন্ড হাফিজ সইদের ১০ বছরের জেল

মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজ সইদকে বৃহস্পতিবার ১০ বছরের কারাদণ্ড দিল পাকিস্তানের আদালত। এ খবর জানা গিয়েছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে। একাধিক মামলায় ইতিমধ্যেই দোষী সাব্যস্ত হাফিজ। এ ছাড়াও আরও দু’টি নাশকতামূলক ঘটনায় লস্কর ই তইবার প্রধানকে দোষী সাব্যস্ত করেছে পাক আদালত।

আরও পড়ুন: শুরুতেই মোক্ষম ধাক্কা নীতীশ সরকারের, তিন দিন পরই ইস্তফা দিলেন মন্ত্রী

এর আগে সন্ত্রাস তহবিলের মামলায় সইদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও জামায়াত-উদ-দাওয়ার মুখপাত্র ইয়াহিয়া মুজাহিদকে ৩২ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। মুজাহিদসহ সন্ত্রাসী সংগঠনের আরও দু’জন নেতাকে অপরাধী ঘোষণা করা হয়েছিল৷

হাফিজ সইদকে পাকিস্তানের কারাদণ্ড দেওয়ার ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসেই সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে আর্থিক মদত দেওয়ার অভিযোগে জামাত উদ দাওয়া প্রধান হাফিজ এবং তার সহযোগীদের ১১ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। বর্তমানে লাহৌরের কোট লাখপত জেলে রয়েছে হাফিজ।

পাক সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, আদালতের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার লাহোর সন্ত্রাসবিরোধী আদালত জামায়াতে উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সাইদসহ জঙ্গি সংগঠনের বেশ কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা করেন। সংগঠনের নেতাদের বিরুদ্ধে মোট ৪১ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে, যার মধ্যে ২৪ টি মামলায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে বাকি মামলার শুনানি এখনও হয়নি।

মুম্বই হামলার মূলচক্রী হাফিজের বিরুদ্ধে একাধিক তথ্যপ্রমাণ ইসলামাবাদের হাতে আগেই তুলে দিয়েছে নয়াদিল্লি। কিন্তু তা নিয়ে কোনও হেলদোল নেই পাকিস্তানের। হাফিজকে ‘আন্তর্জাতিক জঙ্গি’ তকমা দিয়েছে আমেরিকা এবং রাষ্ট্রপুঞ্জও। তার মাথার দাম ঘোষণা হয়েছে ১ কোটি ডলার।অনেকে মনে করছেন আসলে পাকিস্তান বিশ্বের দরবারের একটা ভালো ভাবমূর্তি প্রদর্শন করতে চাইছে।

আরও পড়ুন: আইএসএলে নিজের পছন্দের তিন প্লেয়ারের নাম জানালেন সৌরভ, চেনেন তাদের ?