পাঁচ গার্লফ্রেন্ডের ছবি সোশ্যাল মাধ্যমে, নেহার ট্রোলারদের হুল ফাটালেন অঙ্গদ বেদী

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেস্ক: নীতিপুলিশি করেছিলেন নেহা ধুপিয়া। ‘রোডিস রেভলিউশন’ রিয়েলিটি শো-তে এক অংশগ্রহণকারী জানিয়েছিলেন, তিনি তাঁর প্রেমিকাকে সপাটে চড় মেরে উচিত শিক্ষা দিয়েছেন। কেন? প্রেমিকা নাকি একসঙ্গে পাঁচ পুরুষ নিয়ে ঘুরেছিলেন! সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে থামিয়ে শো চলাকালীন নেহা বলেন, ‘পাঁচজনকে নিয়ে প্রেমিকা ঘুরবেন না একজনকে নিয়ে, সেটা তাঁর ব্যাপার। অবশ্যই আপনার খারাপ লেগেছে। এবং লাগাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু চড় মারার অধিকার আপনাকে কে দিয়েছে?’ সেই দৃশ্য সোশ্যালে ভাইরাল হতেই বিতর্কের কেন্দ্রে নেহা। প্রচণ্ড ট্রোলড হতে থাকেন অভিনেত্রী। এরপরেই সোমবার নেহার হয়ে মুখ খোলেন স্বামী অঙ্গদ বেদী।

আরও পড়ুন:   নকল নারীবাদী তকমা, সোশ্যাল মিডিয়ায় দিনভর ট্রোল নেহা ধুপিয়া

 

https://www.instagram.com/p/B9yDKVSh3zm/

এদিন নেহার সঙ্গে পাঁচটি আলাদা আলাদা লুকের ছবি শেয়ার করে নিয়ে ইনস্টাগ্রামে অঙ্গদ লেখেন,’ শোন আমার কথা.. এই দেখ আমার পাঁচটা গার্লফ্রেন্ড। যা করবার করে নে!! #itsmychoice’ যদিও পত্নীর সমর্থনে এই পোস্ট করে নিজেই ট্রোলিংয়ের মুখে পড়লেন অঙ্গদ। কেউ কেউ অভিনেতাকে খোঁচা দিয়েছেন তাঁর প্রাক্তন বান্ধবী নোরা ফতেহিকে নিয়ে, কেউ জানতেই চায় না অঙ্গদ কী রাজকার্য করতে চাইছে এই মাথামুণ্ডুহীন পোস্ট করে?

আরও পড়ুন: অঙ্গদানের প্রচারে এবার রাখি সাওয়ান্ত, দিতে চান নিজের সুডৌল স্তনযুগল!

প্রসঙ্গত রোডিজে এক প্রতিযোগী জানায় তাঁর প্রেমিকা একসঙ্গে পাঁচটা বয়ফ্রেন্ড রাখছিল সে কথা জানতে পেরে সে প্রেমিকার সব বয়ফ্রেন্ডদের একত্রিত করে তাকে চড় মারে। এই ঘটনা জেনে নেহার রোষের মুখে পড়তে হয় সেই প্রতিযোগীকে। নেহা রীতিমতো সেই ছেলের তুলোধনা করে বলে, ‘কেউ তোমাকে অধিকার দেয়নি মেয়েটির গায়ে হাত তোলবার। সে চাইলে একসঙ্গে পাঁচটা বয়ফ্রেন্ড রাখতেই পারে। সেটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। হয়ত সমস্যা তোমার মধ্যে আছে’!এরপর থেকেই টুইটার, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে নেহার নামের পাশে ভুয়ো নারীবাদী, হিপোক্রিট, ফেক নানা তকমা সেঁটে দেওয়া হয়েছে। অবশেষে শনিবার গোটা বিষয় নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী। টুইটারে একটি বিবৃতিতে অভিনেত্রী জানিয়েছেন,’ গত পাঁচ বছর ধরে রোডিজ শোয়ের সঙ্গে আমি যুক্ত এবং এই শোয়ের প্রতিটা মুহূর্ত আমাকে আনন্দ দেয়। আমি গোটা দেশ ঘুরতে পারি এর সুবাদে এবং দেশের নানান প্রান্তের রকস্টারের সঙ্গে আমার পরিচয় করিয়ে দেয়। তবে গত দু সপ্তাহ ধরে যেটা ঘটছে সেটা আমার কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। সম্প্রতি সম্প্রচারিত এক এপিসোডে আমি হিংসার বিরুদ্ধে আওয়াজ উঠিয়েছি। একটি মেয়ে তাঁর প্রেমিককে ধোঁকা দিচ্ছল, তাই ছেলেটি মেয়েটিকে চড় মেরেছে। মেয়েটা যেটা করেছে সেটা তার ব্যক্তিগত চয়েস। সেটা ছেলে-মেয়ে নির্বিশেষে কারুর ব্যক্তিগত চয়েস। আমি সম্পর্কে থেকে ধোঁকা দেওয়াটা সমর্থন করিনি তবে গোটা ঘটনাটা মানুষ ভুল বুঝেছে। কিন্তু আমি একটা মেয়ের সুরক্ষার হয়ে আওয়াজ তুলেছি’।

আরও পড়ুন: হাতে হাত, মুখে স্মিত হাসি, প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছে এই লাভ বার্ডস

নেহার এই বিবৃতি সমর্থন করেছে বলিউড। তাপসী পান্নু, মালাইকা অরোরা, আয়ুষ্মান খুরানা, সোনম কপূর- সকলে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাঁদের বক্তব্য, আলোচনা চলতেই পারে কিন্তু কারও মতামত পছন্দ হয়নি বলে অনলাইনে তাঁর বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানো কোনওমতেই সমর্থনযোগ্য নয়।

 

(আপনার আশপাশের পরিবর্তনের অংশ হতে চান? আমাদের খবর পাঠান ইমেল্ ও হোয়াটআপের মাধ্যমে)

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest