করোনায় আক্রান্ত কানাডার প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী, আইসোলেশনে জাস্টিন ট্রুডোও

অটোয়া: এবার করোনায় আক্রান্ত হলেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগরি ট্রুডো। আপাতত নিজের বাড়িতেই আইসোলেশনে রয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার রাতে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে টুইট করে এই খবর জানানো হয়। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে কানাডার প্রধানমন্ত্রীও আইসোলেশনে রয়েছেন।

আরও পড়ুন: করোনা-কাঁটায় কলকাতাতেও, স্কুল কার্যত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল সাউথ পয়েন্ট

প্রধানমন্ত্রীর অফিসের তরফে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘করোনাভাইরাসের জন্য আজ (বৃহস্পতিবার) সোফি গ্রেগরি ট্রুডোর শরীরের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। তা পজিটিভ এসেছে। চিকিৎসকদের পরামর্শ মতো আপাতত তাঁকে আইসোলেশনে রাখা হবে। তিনি মোটামুটি সুস্থ বোধ করছেন। তিনি সমস্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা মেনে চলছেন। তাঁর উপসর্গ জটিল নয়।’

আরও পড়ুন: করোনার জের: ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত আইপিএল

সম্প্রতি ব্রিটেন থেকে ফেরার পরে হালকা জ্বর হয় সোফির। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি প্রয়োজনীয় শারীরিক পরীক্ষা করিয়ে চিকিৎসকদের পরামর্শ নেন। আইসোলেশনে থাকা করোনাভাইরাস আক্রান্ত কানাডিয়ান ফার্স্ট লেডি নিজেও টুইট করেছেন।কানাডায় অন্য যে সব পরিবারে আইসোলেশন পর্ব চলছে, তাদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছেন সোফি ট্রুডো। যাদের ক্ষেত্রে এই রোগের প্রকোপ বেশি তীব্র, তাঁদের প্রতিও তিনি সমব্যথী। সোফির আশা, একসঙ্গে লড়াই করে এই রোগ প্রতিহত করা যাবে। একইসঙ্গে, সবাইকে নিজের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখতে বলেছেন তিনি।

এখনও অবধি কানাডায় ১০৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, মারা গিয়েছেন একজন। রোগের প্রকোপ সবথেকে বেশি ব্রিটিশ কলম্বিয়া, অন্টারিও, অ্যালবার্টা, কুইবেক এবং ম্যানিটোবা প্রদেশে। এই রোগ মোকাবিলায় একশো কোটি ডলার মঞ্জুর করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। প্রধানমন্ত্রীর অফিসের তরফে বলা হয়েছে, ‘নিজের দায়িত্ব পুরো পালন করবেন প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দেবেন তিনি।’

(আপনার আশপাশের পরিবর্তনের অংশ হতে চান? আমাদের খবর পাঠান ইমেল্ ও হোয়াটআপের মাধ্যমে)