‘ভাইরাস ছড়াও’, ফেসবুকে পোস্ট করে গ্রেফতার ইনফোসিস কর্মী, বরখাস্ত করল সংস্থাও

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বেঙ্গালুরু: বাইরে গিয়ে বেশি করে হেঁচে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে দেওয়া হোক৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন পোস্ট করায় এক কর্মীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করল তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা ইনফোসিস৷ বিবৃতি দিয়ে সংস্থার তরফেই এই খবর জানানো হয়েছে৷

করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে সরকারি, বেসরকারি সব ক্ষেত্রই চরম সতর্কতা গ্রহণ করেছে৷ তার মধ্যেই এমন দায়িত্বজ্ঞানহীন পোস্ট করে বসেন ওই ইনফোসিস কর্মী৷সেই পোস্ট ছড়িয়ে পড়তেই তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাঁকে বহিষ্কার করেছে ইনফোসিসও।

আরও পড়ুন: Corona Outbreak: বন্ধ ত্রাণ শিবির থেকে ফের পোড়ো বাড়িতেই ফিরছেন দিল্লি হিংসার আর্তরা

অভিযুক্ত ওই যুবকের নাম মুজিব মহম্মদ। ২৫ বছরের মুজিব সম্প্রতি ফেসবুক পোস্টে লিখেছিলেন, ‘‘আসুন হাত ধরে বাইরে বেরোই এবং প্রকাশ্যে খোলা মুখেই হাঁচি। ভাইরাস ছড়িয়ে দিন।’’ এই পোস্ট দেখেই তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সিটি ক্রাইম ব্রাঞ্চ বেঙ্গালুরুর জয়েন্ট কমিশনার সন্দীপ পাতিল বলেছেন, ‘‘লোকজনকে হেঁচে ভাইরাস চড়িয়ে দিতে বলা ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর নাম মুজিব। তিনি একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় কাজ করেন। তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’’

আরও পড়ুন:স্মৃতির ঝাঁপি! রামায়ণ, মহাভারতের পর এ বার দূরদর্শনে ফিরছে ‘সার্কাস’, ‘ব্যোমকেশ’ও

বিষয়টি সামনে আসতে মুজিবের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে ইনফোসিস। সেই তদন্তের পরই তাঁকে চাকরি থেকে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিষয়টি নিজেদের টুইটার হ্যান্ডলেও জানিয়েছে ইনফোসিস। সেখানে তারা লিখেছে, ‘‘আমাদের কর্মীর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট নিয়ে তদন্ত শেষ হয়েছে। এটা ভুলবশত করে ফেলা কাজ নয়।’’ তারা আরও জানিয়েছে, ‘‘ওই কর্মীর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ইনফোসিসের সামাজিক দায়বদ্ধতা ও কোড অব কনডাক্টের পরিপন্থী। এ হেন কাজের জন্য জিরো টলারেন্স নীতি নেওয়া হয়েছে। ওই কর্মীকে চাকরি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।’’

এর আগে গত ১৪ মার্চ ইনফোসিস সংস্থার তরফ থেকে বেঙ্গালুরুতে অবস্থিত তাঁদের একটি কার্যালয় খালি করে দেওয়া হয়। ওই সংস্থার কিছু কর্মী করোনা আক্রান্ত, এই সন্দেহেই গোটা ভবন খালি করে দেয় তারা। সংস্থার প্রধান গুরুরাজ দেশপাণ্ডে ই-মেল মারফৎ জানান, “দয়া করে মনে রাখবেন যে এটা কেবলমাত্র আমাদের কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্যে করা হচ্ছে এবং আমরা আমাদের নিরাপত্তার জন্যে ওই জায়গাটি স্যানিটাইজ করব”।

সেই সময়েই ওই আইটি সংস্থার বেঙ্গালুরু উন্নয়ন কেন্দ্রের প্রধান বলেন, “আমরা আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি যে সোশ্যাল সাইটগুলিতে বা মানুষের মুখে মুখে যে ধরণের গুজব ছড়াচ্ছে সেই সব কথায় বিশ্বাস করবেন না বা নিজেও ওই ধরণের গুজব ছড়াবেন না”। কর্নাটকে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই ৬৪ ছুঁয়েছে। তিন জনের মৃত্যুও হয়েছে সেই রাজ্যে।

আরও পড়ুন: কেরলে মৃত ৬৯ বছরের করোনা আক্রান্ত রোগী, ভারতে সংখ্যা বেড়ে ২০

Gmail 7

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest