ঘরে ফেরার দাবিতে সুরাটে ফের বিক্ষোভ শ্রমিকদের, চলল লাঠি-কাঁদানে গ্যাস,

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

সুরাট: মানুষগুলোর দাবি একটাই। ঘরে ফিরতে দাও। এদিন এই দাবি তোলপাড় হল সুরাট।বিক্ষোভে উত্তাল হল গুজরাতের সুরাট । বাড়ি ফিরে যাওয়ার দাবি নিয়ে শনিবার রাস্তায় নেমেছিলেন কয়েক’শ পরিযায়ী শ্রমিক। বিক্ষোভে বাধা দিতে এলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন তাঁরা।

পরিস্থিতি সামাল দিতে বিক্ষোভকারীদের উপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ। বিক্ষোভ হটাতে কাঁদানে গ্যাসের শেলও ফাটানো হয়। তাতে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে বেশ কয়েক জন আহতও হন।

এই প্রথম নয়। তবে গত এক মাসে একাধিক বার এই ধরনের বিক্ষোভ দেখা গিয়েছে সুরাট -সহ গুজরাতের বিভিন্ন এলাকায়।এ দিনের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। গয়না ও বস্ত্রশিল্পের কেন্দ্র হিসাবে পরিচিত সুরাটে লক্ষ লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকের বাস, যার ৯০ শতাংশই ওড়িশা থেকে গিয়েছেন। লকডাউনে বন্ধ রোজগার।বিপাকে পড়েছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন: করোনাভাইরাসের সঙ্গে বেঁচে থাকার অভ্যাস করতে হবে, স্পষ্ট জানিয়ে দিল স্বাস্থ্যমন্ত্রক

এমন পরিস্থিতিতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সেখান থেকে কাজ করতে আসা শ্রমিকরা।  লকডাউনের জেরে রোজগারপাতি বন্ধ হয়ে গিয়েছে আগেই। লকডাউনের প্রথম দিকে সরকারের তরফে চাল-ডাল দিয়ে যা-ও বা সাহায্য করা হয়েছিল, গত কয়েক সপ্তাহে কিছুই মেলেনি বলে অভিযোগ করছেন অনেকে। এমনকি সরকারের ব্যবস্থা করে দেওয়া ট্রেনের ভাড়া নিয়েও জালিয়াতি চলছে  বলে অভিযোগ। এই অবস্থায় কোন ওরকমে যাতে বাড়ি পৌঁছতে পারেন, তার জন্যই রাস্তায় নেমে এসেছেন বহু মানুষ। 

উল্লেখ্য, ভারতে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা গত শুক্রবারের হিসেব অনুযায়ী ৫৬,৪০৯। সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা ১,৮৯০। এইমস বিশেষজ্ঞদের মতে, আগামী জুলাই মাসে দেশে সংক্রমণের হার সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছবে।

আরও পড়ুন: পরীক্ষা ছাড়াই কোভিড কেয়ার কেন্দ্র থেকে রোগী ছাড়ার নির্দেশ, নয়া গাইডলাইন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest