ভারতে করোনার শিকার ১২: মধ্যপ্রদেশে প্রথম করোনার বলি ৬০ বছরের বৃদ্ধ, আক্রান্ত ছাড়াল ৬০০

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসে এ বার প্রথম মৃত্যু হল মধ্যপ্রদেশে। জানা গিয়েছে, ৬৫ বছর বয়সী ওই মহিলা করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইনদোরের হাসপাতালে ভরতি ছিলেন। বুধবার তাঁর মৃত্যু হয়। এই নিয়ে ভারতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১২! জানা গিয়েছে, ওই বৃদ্ধার ডায়াবিটিস ও হাই প্রেশারের সমস্যা ছিল।

বুধবার অবশ্য তামিলনাড়ুতেও ঘটেছে মৃত্যুর ঘটনা। বুধবার ভোররাতে তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রী সি বিজয়শংকর ট্যুইট করে জানিয়েছেন, রাজাজি হাসপাতালে করোনায় যাঁর মৃত্যু হয়েছে তাঁর দীর্ঘদিন ধরে COPD-র সমস্যা ছিল। ছিল অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবিটিস ও উচ্চ রক্তচাপও।

আরও পড়ুন: করোনা রোধে নিজে থেকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন কিনবেন না, সতর্ক বার্তা কেন্দ্রের

মঙ্গলবার দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫০-এরও বেশি মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। উদ্বেগের পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে দু’টি রাজ্যে — মহারাষ্ট্র এবং কেরালা। দুই রাজ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা একশো ছাড়িয়েছে! মহারাষ্ট্রে এ দিন নতুন করে ৬ জনের শরীরে ভাইরাস মিলেছে। যার জেরে মোট আক্রান্তের সংখ্যাট গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১০৭-এ। ঠিক পরেই কেরালা, আক্রান্ত ১০৫। দক্ষিণের এই রাজ্যের কাছে উদ্বেগের বিষয় হল, এখানে আক্রান্তের হার মহারাষ্ট্রের থেকে বেশি। এ দিন এই রাজ্যে ১৪ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

এর মধ্যেই স্বস্তির খবর, ইতিমধ্যেই দেশে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪০ জন। সংক্রমণ ঠেকাতে আগেই রাজ্যগুলো লকডাউন, শাটডাউনের পদক্ষেপ করেছে। তা কার্যকরী ছিল ৩১ মার্চ পর্যন্ত। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ঘোষণা করেন, গোটা দেশে লকডাউন জারি থাকবে আরও ২১ দিন, অর্থাত্ ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। এই সময় সকলকেই ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তবে জরুরি পরিষেবাগুলো অব্যাহত থাকবে বলেই জানিয়েছেন তিনি। দেশে সংক্রমণ যাতে দ্রুত গতিতে না বাড়তে পারে, তার জন্য সামাজিক দূরত্বও বজায় রাখার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য প্রশাসনগুলোর তরফে। তার পরেও লকডাউন অমান্য করার অভিযোগ উঠেছে বিভিন্ন রাজ্যে। ফলে এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে কোনও কোনও রাজ্য কার্ফুও জারি করেছে।

আরও পড়ুন:  চেনা জায়গায় নয়, করোনায় মৃতদের দাহ বা কবরের জন্য নয়া স্থান বাছল কলকাতা পুরসভা

অন্য দিকে, বিশ্বেও আক্রান্তের সংখ্যাটা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। প্রতি দিনই কয়েকশো মানুষ নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন। ইতিমধ্যেই গোটা বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। মৃত্যু ছাড়িয়েছে ১৮ হাজার। ইটালিতে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সেখানে মৃত্যু হয়েছে সাড়ে ৬ হাজারেরও বেশি মানুষের। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৭০ হাজার। অন্য দিকে, চিনে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৮২ হাজার।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest