আজ ফোকাস-এ

গোলাপ ছড়ানো বাথটবে বসে করোনা মোকাবিলার বার্তা, নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার ম্যাডোনা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

লস এঞ্জেলেস: বাথটবে শুয়ে আছেন বিখ্যাত, পপ গায়িকা ম্যাডোনা ৷ জলে খেলা করছে গোলাপের পাপড়ি৷ তবে এবার আর ম্যাডোনা নিজের ভঙ্গিতে রইলেন না৷ উল্টে ম্যাডোনার উত্তেজক শরীর ভেদ করে কপালে চিন্তার ভাজই নজরে পড়ল ৷ হ্যাঁ, গোটা বিশ্বের অন্যান্য মানুষের মতো ম্যাডোনাও করোনা নিয়ে উদ্বিগ্ন ৷ তিনিও রীতিমতো ভয়ে, উৎকণ্ঠায় !

আরও পড়ুন: ‘ঘরে থাকুন’, করোনা সতর্কবার্তা এবার আকাশে লিখে দিলেন পাইলট!

দিন দুই আগে বিখ্যাত পপ গায়িকা বাথরুম থেকেই তাঁর ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছিলেন স্নানের ভিডিও ৷ তাতে দেখা গিয়েছিল দুধসাদা জলে শুয়ে আছেন ম্যাডোনা ৷ জলের মধ্যে খেলা করছে গোলাপের পাপড়ি ! বাথটবে বসেই ম্যাডোনা জানালেন, করোনা ভাইরাস আসলে ঠিক কী করছে…। ক্লান্তি মেশানো গলায় তিনি বলেছেন, এই অসুখ দেখছে না কে কত বড়লোক, কত বিখ্যাত, কত মজাদার, কতটা স্মার্ট, কোথায় বাড়ি, কত বয়স কিংবা কত ভাল গল্প বলতে পারেন আপনি। এই অসুখের এটাই মহত্ব যে এ সবাইকে, সবকিছুকে একাকার করে মিলিয়ে দিয়েছে। গোলাপের পাপড়ি ছড়ানো বাথটব থেকেই বলেছেন, এটা এই কারণে ভয়াবহ যে সব কিছুকে মিলিয়ে দিয়েছে আবার এটা এই কারণেই আশ্চর্যজনক যে সব কিছুকে মিলিয়ে দিয়েছে।

ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ম্যাডোনা লিখলেন, ‘করোনা ভাইরাস গোটা বিশ্বে সাম্যের উদাহরণ তুলে ধরেছে ৷ কে গরীব, কে বড়লোক, কোনও ভেদাভেদ মানছে না৷ সবার শরীরেই আক্রমণ করছে…।’ ৬১ বছরের গায়িকা ভিডিয়োতে তুলে আনলেন ১৯৯৫ সালে তাঁর বিখ্যাত অ্যালবাম ‘হিউম্যান নেচারের’ প্রসঙ্গ। সেই সূত্র টেনে তিনি বলেন, ‘যদি জাহাজ ডুবে যায়, তাহলে আমরাও সবাই একসঙ্গে ডুবে যাব’।

গোটা বিশ্ব এখন একটাই লড়াই করছে। সবার প্রতিপক্ষ একজন– করোনাভাইরাস। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্ত, প্রতিদিন বাড়ছে মৃত্যু। সেই পরিবেশে দাঁড়িয়ে যেন এক চরম সত্যকে তুলে ধরলেন মার্কিন পপ তারকা। ইতিমধ্যেই তাঁর দু’টি অনুষ্ঠান বাতিল হয়েছে। দু’টি অনুষ্ঠানই ছিল প্যারিসে।বাথটবে তাঁর গায়ে একটুকরো সুতো না থাকলেও গয়না ছিল। তাঁর ইনস্টাগ্রামে এরকমই গোলাপের পাপড়ি ঢাকা একটি নগ্ন ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘COVID-19 কোনও ভেদাভেদ মানে না। সকলেই সুস্থ থাকুন’।

আরও পড়ুন: করোনার থাবা ব্রিটেনের রাজপরিবারেও, আইসোলেশনে রয়েছেন আক্রান্ত প্রিন্স চার্লস

যদিও এই ভাবে ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে করোনা নিয়ে কথা বলার জন্য নেটিজেনরা তাঁর তুমুল সমালোচনা শুরু করে। উড়ে আসে বেশ কিছু কটাক্ষও। পালে হাওয়া নেই দেখে নিজের স্নানের পোস্টটি ডিলিট করে দেন গায়িকা।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest