মাত্র ৫০ টাকায় ডায়ালিসিস! গরিবদের সুস্থ হয়ে ওঠার ভরসা দিচ্ছেন ফুয়াদ ডাক্তার

ওয়েব ডেস্ক: মাত্র ৫০ টাকায় ডায়ালিসিস। এও কি সম্ভব। হুজুগ নয় তো। সোশ্যাল সাইটে ছড়ান সব খবর চোখ বুজে বিশ্বাস করা যায় না। কিন্তু খবর পাকা। চিকিৎসক, ফুয়াদ হালিম তাঁর নিজস্ব হাসপাতালে মাত্র ৫০ টাকায় সাধারণ মানুষের ডায়ালিসিস করার ব্যবস্থা করেছেন।

বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে নিজের কিড স্ট্রিটের বাড়ির পাশেই হাসপাতাল গড়েন ফুয়াদ। হ্যাঁ, মূলত গরিবের হাসপাতাল। ২০০৮ সালে এই হাসপাতালের পথ চলা। লকডাউনের আগে পর্যন্ত মাত্র ৩৫০ টাকায় ডায়ালিসিস হত এই হাসপাতালে।

আরও পড়ুন: মাস্কে না হয় নাক-মুখ ঢাকলেন, চোখ দিয়েও ঢুকতে পারে করোনা, জেনে নিন কীভাবে

লকডাউন ঘোষণা হতেই ফুয়াদ ভাবেন, যাতায়াতের তেমন সুযোগ কোথায় এখন? আসতে-যেতেই যে অনেক টাকা বেরিয়ে যাবে মানুষগুলোর! তখনই সিদ্ধান্ত নেন কমানো হবে ডায়ালিসিসের খরচ।

এতে যে কত গরিব মানুষের সুবিধা হয়েছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। লকডাউনের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত ফুয়াদ হালিমের হাসপাতালে ৫০ টাকায় ডায়ালিসিস হয়েছে মোট ১৬৪৩ বার!

বিধানসভার প্রাক্তন স্পিকার হাসিম আবদুল হালিমের ছেলে ফুয়াদ হালিম। সিপিআইএমের অন্যতম তরুণ মুখ ফুয়াদ হালিম। এটি একান্তই তাঁর রাজনৈতিক পরিচয়। বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে নিজের কিড স্ট্রিটের বাড়ির পাশেই হাসপাতাল গড়েন ফুয়াদ। হ্যাঁ, মূলত গরিবের হাসপাতাল। ২০০৮ সালে এই হাসপাতালের পথ চলা।পাঁচ শয্যার এই হাসপাতালে আছে নটি ডায়েলিসিস মেশিন।

ফুয়াদ হালিম জানান এত সস্তায় পরিষেবা দিতে পারার ফর্মুলাটি। তিনি বলেন, যেগুলি অন্য নার্সিং হোমে থাকে, সেগুলি এখানে নেই। কোনও এসি নেই, লিফট নেই। এমনকী
রোগীর পরিবারের বসার জন্য রিসেপশন ও ওয়েটিং এরিয়াও নেই । তিনজন চিকিৎসক আছেন, তার মধ্যে স্টাইপেন্ড নেন একজনই। ফুুয়াদ ও আরেকজন বিনাপয়সায় চিকিৎসা করেন। এমনিতে ৩৫০ টাকায় ডায়ালিসিস হয় এখানে।

আরও পড়ুন: ডেঙ্গুর মত করোনার টিকা আবিষ্কার সম্ভব নাও হতে পারে, আশঙ্কা WHO-র

Gmail 3