প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ মামলায় হাইকোর্টে ধাক্কা রাজ্যের, ৩০ দিনে নিয়োগের নির্দেশ

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার। শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে,৩০ দিনের মধ্যে নিয়োগ করতে হবে। বাম আমলে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে মামলা হয়েছিল। এদিন হাইকোর্টে সেখানেই ধাক্কা খেয়েছে রাজ্য সরকার। এদিন এই নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী।

২০০৯ সালে মালদহ ও উত্তর ২৪ পরগণার সফল কর্মপ্রার্থীদের তালিকা ১৫ দিনের মধ্যে প্রকাশের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট। এরপর নিয়োগ প্রক্রিয়াও শেষ করতে হবে ১৫ দিনের মধ্যেই।

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়া থামল ৩৩৮ রানে,কম ইনিংস খেলে কোহলিকে ছুঁলেন স্মিথ

গত ২৩ ডিসেম্বর  ১৬ হাজার শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করে প্রাথমিক বোর্ড। সেই বিজ্ঞপ্তির উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে মামলা দায়ের হয়েছে হাইকোর্টে। আগামী ৪ জানুয়ারি মামলার শুনানি হবে। এমনটাই জানিয়েছেন বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজ।

মামলাকারী ফিরদৌস শামিমের বক্তব্য, ২০১৪ সালের উত্তীর্ণ টেট (TET) পরীক্ষার্থীদের থেকে এই শূন্যপদে নিয়োগ হওয়ার কথা। ঘটনাচক্রে ওই বছর প্রশ্ন ভুল এসেছিল। মোট ৬টা প্রশ্ন ভুল ছিল। ভুল প্রশ্নে অনেকেই নম্বর পাননি। যার ফলে পরীক্ষায় উত্তীর্ণও হতে পারেননি। এখন সেই সংক্রান্ত একটি মামলা চলছে। সেটা সংশোধন না করে কীভাবে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হল? প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) জানিয়েছেন, ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে ১৬,৫০০ শূন্যপদে নিয়োগ করা হবে। ১০ থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে ইন্টারভিউ। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তৈরি হয়ে যাবে নিয়োগ প্যানেল। ৩১ জানুয়ারি অফলাইনে তৃতীয় টেটের (TET) কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।