ঘরবন্দী ঈদের সাজ, নো মেকআপেই বাজিমাত!

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেক্স: এবারের ঈদ সবারই ঘরে কাটাতে হবে। বাইরে কোথাও যাওয়ার একদমই উপায় নেই। আত্মীয় স্বজন ছাড়া এক অন্যরকম ঈদ কাটাতে চলেছে সবাই। বাড়িতেই থাকতে হবে তাই বলে কি ঈদের দিন সাজবেন না?  আপনি যদি বাড়ির কত্রী হন। তাহলে বেশিরভাগ সময় কাটাতে হয় রান্নাঘরেই।  সারা দিন যেহেতু চুলোর পাশেই কাটবে তাহলে সানস্ক্রিন মাস্ট। সকালে মুখ ধুয়ে প্রথমে ময়েশ্চারাইজার মেখে নেওয়া চাই।

এরপর সানস্ক্রিন। তার উপর কমপ্যাক্ট পাউডারের প্রলেপ বুলিয়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে সাজের বেস।  চোখের সাজে বেছে নিন ত্বকের রঙের সঙ্গে মানানসই ক্রিমি আইশ্যাডো। আইলাইনার বা মাশকারাও চলতে পারে। অবশ্যই তা হওয়া চাই ওয়াটারপ্রুফ। গালে হালকা ব্লাশনে সহজেই লুকে স্নিগ্ধতা ফুটে উঠবে। সবশেষে ওয়াটারপ্রুফ সেটিং স্প্রে করে মেকআপ সেট করে নিন।  যেহেতু খুব গরমও পড়েছে। পোশাকের বেলায় আরামদায়ক কিছুই বেছে নিন।

চাইলে সুতি কুর্তি বা কামিজ পড়তে পারেন। আরামদায়ক পোশাক পরে উৎসবের দিনটা শুরু করুন। গরমে চুল বেঁধে নেওয়াটাই সবচেয়ে স্বস্তির। রান্নাঘরে হাত খোঁপা করে নিতে পারেন।  রান্না শেষে বিকেলে পোশাক বদলে একটু মেকআপ টাচআপ করে নিন।

সালোয়ার কামিজ বা টপসের সাথেও মেকআপ হওয়া চাই হালকা। চুল পনিটেল করে নিলে পোশাকের সাথে ভালো মানাবে। চুল খুলে রাখতে চাইলে কার্ল করে নিতে পারেন নিচের চুলগুলো। কাছে ছোট্ট দুল।

ঈদের দিন রাতেও এবার অতিথিদের আসার তাড়া নেই। তাই বলে তো সাজ বাদ দেওয়া যায় না। তাই একটু গাঢ় রং এর পোশাক বেছে নিতে পারেন রাতে পরার জন্য। সাথে মেকআপে ভারী বেসের প্রয়োজন নেই এবেলাতেও। চাইলে সিসি ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে। একটু ব্লাশঅন ব্যবহার করতে পারেন রাতে। লিপস্টিকটা দিন গাঢ় রঙ এর। তাহলে ভিন্নতা আসবে সাজে।

Gmail 2
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest