সাসপেন্স ও হররের পারফেক্ট কম্বিনেশন, এই শীতে দেখে ফেলুন ‘4 Shades of Leap’…

আপনি যদি হরর সিরিজের ভক্ত হন, তাহলে এই সিরিজ কোনো ভাবেই মিস করবে না।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

তরুণ চিত্র পরিচালক ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে বাংলা ভাষায় তৈরি হল ভারতের প্রথম  মিনি হরর সিরিজ। গা ছমছমে চারটি ভিন্ন গল্প নিয়ে তিনি তৈরি করেছেন ‘ফোর শেডস অফ লিপ’।প্রতিটি গল্পের সময়সীমা মাত্র পাঁচ মিনিট করে। কাহিনী গুলো পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন স্থানীয় অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।

এই সিরিজের পরিচালনায় রয়েছেন ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এই ছবির গল্পকারও বটে। সেইসঙ্গে ছবির সুর পরিচালনা এবং সম্পাদনার দায়িত্বেও রয়েছেন ইন্দ্রনীল।সহকারী গল্পকার হিসাবে রয়েছেন তুহিন দাশগুপ্ত। ছবিটির প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছেন ইন্দ্রনীল স্বয়ং। সিনেমাটোগ্রাফি করেছেন তুহিন দাশগুপ্ত। অভিনয়ে রয়েছেন অর্ক ভট্টাচার্য, দেবস্মিতা চক্রবর্তী, সুকন্যা সেন, গৌতম চক্রবর্তী, সৃজনী মুখোপাধ্যায়, দেবপ্রিয়া চক্রবর্তী প্রমুখ।

আরও পড়ুন: নিমন্ত্রিত নন গোবিন্দা ও বচ্চন পরিবার! বরুণ-নাতাশার বিয়ের অতিথি লিস্টে কারা?

সিরিজটির প্রথম এপিসোডের নাম ‘লক্ষী’, যেখানে একজন মা ও তাঁর সন্তানের গল্প তুলে ধরা হয়েছে। দ্বিতীয় এপিসোডের নাম ‘ডুম ডেস্টিনেশন’, শীতের কলকাতায় অফিস ফেরত দুই বন্ধুর বাড়ি ফেরার গল্প তুলে এখানে তুলে ধরেছেন পরিচালক।

তৃতীয় এপিসোডের নাম ‘বেস্ট এভিল ক্রিস্টমাস’। গল্প আবর্তিত হয়েছে মেরিকে কেন্দ্র করে। যে ক্রিসমাসের ছুটিতে বাড়ি না গিয়ে হোস্টেলে একা আছে। তারপর?  আর শেষ এপিসোডের নাম ‘মুড়ি ঘন্ট’। মামনের বাবার মুড়িঘন্ট খাওয়ার ইচ্ছা। বাবার ইচ্ছা পূরণে মামন ছুটেছে বাজারে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর মাছ কিনে বাড়ি ফেরে সে। কিন্তু মুড়িঘন্ট কি রান্না করতে পারবে মামন? নাকি ঘটবে কোনো অবাঞ্চিত ঘটনা? এই সিরিজ আপনাকে ভয় পেতে বাধ্য করবে।

এই সিরিজটি তৈরি হয়েছে সত্যি ঘটনাকে কেন্দ্র করে।  কাহিনীর বিন্যাসে, আলোর কাজ, পরিবেশ, ক্যামেরার কাজ – সবের মধ্যেই পাবেন দর্শকরা পাবেন গা ছমছমে অনুভূতি।যা কখনো কখনো বইয়ে দেবে ভয়ের চোরা স্রোত । অভিনেতা- অভিনেত্রীরা যথাযথ।

আপনি যদি হরর সিরিজের ভক্ত হন, তাহলে এই সিরিজ কোনো ভাবেই মিস করবে না। ভারতে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম এমএক্স প্লেয়ারে বিনামূল্যে দেখতে পাবেন এই সিরিজটি। আমেরিকা ও কানাডায় দর্শকরা এই সিরিজটি আমাজন প্রাইমে দেখতে পাবেন।

আরও পড়ুন: ভেজা রেলগাড়ি হয়তো সবুজ ছুঁয়ে ফেলে… নস্টালজিয়া উস্কে দিল JawlPhoring 2.0

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest