অবশেষে করোনামুক্ত অভিষেক বচ্চনও, ছাড়া পাচ্ছেন আজই

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

অবশেষে স্বস্তি। শনিবারই করোনার বিরুদ্ধে দীর্ঘ লড়াইয়ে জয়ী হলেন অভিষেক বচ্চন (Abhishek Bachchan)। আর তাঁর সঙ্গেই কোভিড-১৯ মুক্ত হল গোটা বচ্চন পরিবার।

দীর্ঘ ২৮ দিন পর অভিষেকের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এল।গত ১১ জুলাই বাবা অমিতাভের সঙ্গেই নিজের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানিয়েছিলেন অভিষেক বচ্চন। পরের দিন জানা যায়, জয়া বচ্চন বাদে বচ্চন পরিবারের প্রত্যেকেই, অর্থাৎঐশ্বর্য এবং আরাধ্যাও করোনা আক্রান্ত। ১২ তারিখই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন অমিতাভ ও অভিষেক। এরপর ২ অগস্ট করোনা মুক্ত হয়ে ফিরে আসেন বিগ বি। তবে ওই দিনই অভিষেকের করোনা রিপোর্ট ফের পজিটিভ আসে। টুইটে অভিষেক জানান, ‘কোমর্বিডিটির কারণে’ই তাঁকে হাসপাতালে থাকতে হচ্ছে। পরে করোনা মুক্ত হয়ে মেয়েকে নিয়ে বাড়ি ফেরেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চনও। ‘করোনাকে হারিয়ে’তিনিও যে বাড়ি ফিরবেন, টুইটে প্রতিজ্ঞা করেছিলেন জুনিয়র বচ্চন।

আরও পড়ুন: সুশান্ত মৃত্যু তদন্ত: রিয়াকে ফের ডাকল সুপ্রিম কোর্ট, পরের শুনানি ১১ অগস্ট

সেই কথা মনে রেখেই অভিষেক লিখেছেন,‘প্রতিশ্রুতি তো প্রতিশ্রুতিই। আজ আমার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আমি আপনাদের আগেই বলেছিলাম, করোনাকে হারাবই। আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ,আমার জন্য ও পরিবারের সকলের জন্য প্রার্থনা জানিয়েছেন আপনারা। হাসপাতালের ডাক্তার ও নার্সদের প্রতি আমার অসীম কৃতজ্ঞতা।’ বাড়ি ফিরে আরও ১৪  দিন কোয়রান্টিনে থাকবেন অভিষেক।

গত ১১ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে মুম্বইয়ের লীলাবতি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন অমিতাভ ও অভিষেক। পরের দিন করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে ঐশ্বর্য-আরাধ্যারও। যদিও উপসর্গহীন করোনা আক্রান্ত হওয়ায় শুরুতেই বাড়িতেই ছিলেন তাঁরা। এরপর ১৭ জুলাই হাসাপাতালে ভর্তি হতে হয় তাঁদের। করোনা জয় করে আগেই ঘরে ফিরেছেন ঐশ্বর্য, আরাধ্যা। এরপর ২-রা অগস্ট করোনা মুক্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন সিনিয়র বচ্চন। কিন্তু অভিষেকের শরীর থেকে কিছুতেই দূর হচ্ছিল না অতিমারী করোনা। দীর্ঘ ২৮ দিন পর অভিষেকের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এল।

আরও পড়ুন: Bandish Bandits Review: গান পাগল হলে এই সিরিজ আপনার জন্যই, দেখুন ভিডিও…

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest