বিনা অনুমতিতে ভ্যাকসিনের হোর্ডিংয়ে মোদীর পাশে অভিনেত্রীর ছবি! ‘ক্ষুব্ধ’ দীপান্বিতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

প্রধানমন্ত্রী আবাসন যোজনায় এক মহিলার ছবি ব্যবহার করা নিয়েও এর আগে জোর সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল। এবার কোভিড ভ্যাকসিন (Covid Vaccine) প্রচারের হোর্ডিংয়ের ক্ষেত্রেও সেই একই কাণ্ডের পুনরাবৃত্তি! তবে এবার হোর্ডিংয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) পাশে দেখা গেল খোদ টলিউড অভিনেত্রী দীপান্বিতা নাথকে (Dipanwita Nath)। বাংলা টেলিভিশন চ্যানেলে বেজায় জনপ্রিয় মুখ তিনি। কিন্তু দীপান্বিতার অভিযোগ, তাঁর অনুমতি ছাড়াই ছবি ব্যবহার করা হয়েছে ওই ভ্যাকসিনেশন প্রচারের হোর্ডিংয়ে। যা নিয়ে ক্ষুব্ধ অভিনেত্রী ফেসবুকে এক পেল্লাই আকৃতির পোস্টও করেছেন।

‘জয় বাবা লোকনাথ’ কিংবা প্রথম প্রতিশ্রুতি ধারাবাহিকের দৌলতে টেলিদর্শকদের কাছে দীপান্বিতা বেশ পরিচিত মুখ। ‘বেনির মা’ বললে কেউ তাঁকে চিনতে পারেন, আবার কারও কাছে বা তিনি পরিচিত ‘শুভদ্রা’ নামে। সেই টেলি-অভিনেত্রীর ছবিই এবার দেখা গেল ভ্যাকসিনেশন প্রচারের হোর্ডিংয়ে। মোদীর পাশেই দীপান্বিতার মুখ দেখা যাচ্ছে ওই হোর্ডিংয়ে। টেলি-নায়িকার অনুমতি ছাড়াই কেন্দ্রীয় সরকারের ভ্যাকসিনেশন প্রকল্প- “ভ্যাকসিনস ফর অল, ফ্রি ফর অল-এর মুখ হয়ে উঠেছেন তিনি।”

সেই প্রেক্ষিতেই নিজের যাবতীয় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন দীপান্বিতা নাথ। অভিনেত্রী জানান, “গত কয়েক দিন ধরেই আমার কিছু শুভাকাঙ্খী আমার নজরে বেশ কিছু ব্যানার, পোস্টার নিয়ে এসেছেন যেখানে ফ্রি ভ্যাকসিনের প্রচারে আমার ছবি ব্যবহৃত হয়েছে। বিভিন্ন মহল থেকে আমার কাছে রাজনৈতিক প্রশ্ন করা হচ্ছে, যা আমার জন্য অস্বস্তিজনক। বলার কোনও অপেক্ষা রাখে না যে, নিঃসন্দেহে দেশবাসীকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া খুবই মহৎ উদ্যোগ। কিন্তু যাদের ছবি ব্যবহার করা হচ্ছে তাদের অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন। অভিনেত্রী হিসেবে নিজের চেহারা বিজ্ঞাপিত হওয়ার জন্য যে পারিশ্রমিক নিয়ে থাকি, সেটাও আমি পাইনি। সর্বপরি আমাকে জানানো হয়নি, এমন কোনো বিজ্ঞাপনের বিষয়ে।”

আরও পড়ুন: সং থেকে বং অনাবাসী ঢং! লকডাউনে গান বাঁধলেন The Bong Guy

পাশাপাশি জনসংযোগ আধিকারিকদের কাছে তিনি বিনম্র নিবেদনও জানিয়েছেন যে, ভবিষ্যতে যাতে এই বিষয়গুলো তাঁরা খেয়াল রাখেন, যেন অভিনেত্রীরা বা সাধারণ মানুষদের কোনওরকম সমস্যায় না পড়তে হয়।

দীপান্বিতার দাবি, গোটা ঘটনায় তিনি যারপরনাই অবাক হয়েছেন কারণ তিনি এমন কোনও বিজ্ঞাপনে কাজ করেননি। আরও জানিয়েছেন দিন তিনেক আগে তাঁর এক আত্মীয়া হোয়াটসঅ্যাপে বিনামূল্যে প্রতিষেধক দেওয়ার একটি ব্যানারের ছবি তাঁকে পাঠিয়েছিলেন। তখনই এই ব্যাপারটা তাঁর চোখে পড়ে।

আরও পড়ুন: গোয়েন্দা গল্প নিয়ে আসছেন অঞ্জন দত্ত, মুখ্য চরিত্রেও তিনিই!

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest