অভয় দেওলের সঙ্গে কাজ করা যন্ত্রণাদায়ক, ‘দেব-ডি’ প্রসঙ্গে বিস্ফোরক অনুরাগ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মুম্বই: একটা সময় ছিল যখন বলিউডের অন্যধারার ছবির পোস্টার বয় ছিলেন অভয় দেওল। দেওল পরিবারের এই সদস্যের কেরিয়ারের অন্যতম সফল ও চর্চিত ছবি নিঃসন্দেহে দেব ডি। দেবদাসের এই মর্ডান ডে ভার্সন পরিচালনা করেছিলেন অনুরাগ কশ্যপ। ২০০৯ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই বহুল প্রশংসিত ছবি। কিন্তু এই ছবির নায়ক অভয় দেওলকে নিয়েই এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন অনুরাগ। 

অনুরাগের মতে অভয় দেওয়ালের সঙ্গে কাজ করা, ভীষণ কঠিন ও যন্ত্রণাদায়ক। কারণ হিসাবে পরিচালক বলেন, ‘ওঁর সঙ্গে কাজ করবার খুব একটা ভালো স্মৃতি নেই আমার। শ্যুটিং (দেব ডি) শেষ হওয়ার পর আমাদের সঙ্গে সেইভাবে কোনওরকম কথাবার্তাও হয়নি’। 

শুটিং চলাকালীন নানা ভাবে নাকি অনুরাগকে বিব্রত করেছিলেন অভয়, দাবি পরিচালকের। তাঁর কথায়, “অভয়ের সঙ্গে কাজ করার খুব ভাল স্মৃতি আমার নেই। আর্ট ফিল্ম করতে চাইত অভয়। কিন্তু তাঁর দাবিদাওয়া ছিল কমার্শিয়াল ছবির মতো।” নিজের ‘দেওল’ পদবী সম্পর্কে নাকি যথেষ্টই ওয়াকিবহল ছিলেন অভয়। “এমনকি যখন যখন ছবির বাকি সদস্য পাহাড়গঞ্জে ছিলেন সে সময় অভয়ের দাবি ছিল পাঁচতারা হোটেল ছাড়া তিনি থাকবেন না”, মন্তব্য অনুরাগের।

ছবি মুক্তির পরেও নাকি ‘টিম দেব-ডি’ থেকে নিজেকে নাকি পুরোপুরি সরিয়ে নিয়েছিলেন অভয়। “শুনেছি আমারও কিছু কথা নাকি ওর খারাপ লেগেছিল। যদিও তা নিয়ে কোনওদিনও আমায় কিছু বলেনি অভয়,” যোগ করেন অনুরাগ।

 এমনকি ছবির বহু ক্রু মেম্বারকে অপমান করেছে। অনুরাগ বলেন, জানি কী কারণে ও মানসিকভাবে এবং ব্যক্তিগতভাবে সংঘর্ষ করছিল এবং কোনদিনও সেই কথা বলেনি। ওঁর মনে হয়েছিল আমি ওকে ধোঁকা দিচ্ছি। আমার সঙ্গে কোনওরকম সম্পর্ক রাখেনি’। যদিও অভয় দেওল যে একজন অসাধারণ অভিনেতা সেকথাও যোগ করতে ভোলেননি সেক্রেড গেমস পরিচালক। বলিউডে আরও অনেক ভালো চরিত্র অভয় দেওয়ালের পাওয়া উচিত,দাবি অনুরাগের। 

আরও পড়ুন: বলিউডের সবচেয়ে বক্স অফিস সফল নায়িকার শিরোপা পেলেন তাপসী

অনুরাগ কশ্যপই নন, অভয় দেওলকে নিয়ে একই কথা বলতে শোনা গিয়েছে অভিনেতার মনোরমা সিক্স ফিট আন্ডার পরিচালক নভদীপ সিংকেও। ‘অভয়ের মধ্যে একটা অহঙ্কার এবং বিরক্তিভাব রয়েছে,যেটা আমার মনে হয় ওঁর কাটিয়ে ওঠা খুব দরকার।তবে ওঁর অভিনয় দক্ষতাটা ভগবানের দান,সেই কারণেই ওর ফেরা দরকার’।

হাফপোস্ট ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে কার্যত পরিচালকদের এই অভিযোগ মেনেও নিয়েছেন জিন্দেগি না মিলেগি দুবারা তারকা। তিনি বলেন, আমি সত্যিই অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী ছিলাম আমার সাফল্য নিয়ে। আমি নিজেকে একটা ভ্রান্ত ধারণায় ভুলিয়ে রেখেছিলাম যে বড় বড় প্রযোজকরাও আমার উপর টাকা লাগাবে, আমাকে নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করবে। আমার দৃষ্টিভঙ্গি দিয়ে মানুষজন সবটা দেখবে এটা ভেবে নেওয়াটা নিঃসন্দেহে আমার দম্ভ ছিল’। সঠিক সময়ে ভুলগুলো শুধরে নিলে হয়ত অভয়ের কেরিয়ারগ্রাফ অন্যরকম হতে পারত মেনে নিয়েছেন অভিনেতা। 

২০০৫ সালে ‘সোচা না থা’ ছবির মধ্যে দিয়ে বলিউডে ডেবিউ হয় অভয়ের। ধর্মেন্দ্র সম্পর্কে তাঁর কাকা। ফিল্মি ব্যাকগ্রাউন্ডে বড় হওয়ায় বলি-ব্রেক পেতে খুব একটা অসুবিধে হয়নি অভয়ের। বিভিন্ন ছবিতে তাঁর অভিনয় ক্ষমতা বারেবারেই প্রশংসিত হলেও প্রথম সারির হিরোদের তালিকায় এখনও পর্যন্ত জায়গা করে নিতে পারেননি অভয়।

আরও পড়ুন: ‘লড়কি আঁখ মারে!’ প্রিয়ার পর উইংক গার্লের তালিকায় নাম লেখালেন তারা, দেখুন ভিডিও…

Gmail 1

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest