আলোর পথের দিশারী প্রিয়াঙ্কা সরকার, পথশিশুদের হাতে তুলে দিলেন বই-খাতা

সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেও যে ‘সামাজিক’ হওয়া যায়, মহৎ কাজে নিজেকে নিয়োজিত করা যায়, তা বোধহয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা সরকারই দেখিয়ে দিলেন। সম্প্রতি সল্টলেকের এক অঞ্চলের পথশিশুদের হাতে বই, খাতা, পেন্সিল-সহ নানারকম অত্যাবশকীয় সামগ্রী তুলে দিলেন টলিউড অভিনেত্রী।

কিছু দিন আগে পশ্চিমবঙ্গের একজন নামকরা ব্যাক্তি সল্টলেকের একটি জায়গায় ফুটপাতের পাঠশালা দেখে সেই ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট করেন। সেই পোস্টে আলোর দিশারী পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক সেখ রাহানাতুল্লা (রানা) তাদের কর্মকাণ্ড ও চিন্তা ভাবনা নিয়ে কমেন্ট করলে, সেই কমেন্ট পড়ে বেশ কিছু মানুষ যোগাযোগ করতে থাকেন তাদের সঙ্গে। তাদের মধ্যেই অন্যতম টলিউডে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা সরকার।আলোর দিশারী পরিবারের শিশুদের মুখের হাসির ভাগিদার হতে ভালোবাসার টানে এগিয়ে আসেন স্বমহিমায়। এই কঠিন পরিস্থিতিতে কলকাতার ফুটপাথে ও বস্তিতে জীবনযাপন করা অসহায় অবহেলিত এবং সমস্ত সুবিধা থেকে বঞ্চিত মানুষগুলোর জন্য কিছু করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন তিনি।

আরও পড়ুন: ফের করোনা হানা টেলি পাড়ায়, কোভিড-১৯ পজিটিভ সায়ক চক্রবর্তী ও সৌমিলি ঘোষ বিশ্বাস

সেই মতো সম্পাদক সেখ রাহানাতুল্লার (রানা) সঙ্গে কথা বলে, বেশ কিছু প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের তালিকা তৈরি করে ফেলেন তিনি। এবং অসহায় শিশু ও সমস্যার সম্মুখীন মানুষদের সাহায্য করতে খাতা, সিলেট, পেন্সিল , ত্রিপল, সফ্ট ড্রিঙ্কস , চিপস্ চকোলেট ইত্যাদি নিয়ে, নিজে ২৯ শে আগস্ট মৌলালীতে আসেন। প্রিয়াঙ্কা ত্রিপল তুলে দেন সমস্যার মধ্যে থাকা মানুষদের হাতে। তার পাশাপাশি কোডিড ১৯ করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে মোকাবিলা করতে “হু” এর নির্দেশ অনুযায়ী স্যানিটাইজার ব্যবহার করাটা অত্যন্ত জরুরী, সেটাও জানান মানুষকে।

জুলাই মাসেই সোনারপুরের ‘আ হোম ফর অরফ্যানস অ্যান্ড ওল্ডেজ’ নামে এক অনাথ আশ্রমে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। সেখানে দুস্থ বাচ্চাগুলোর জন্য যা করেছিলেন, তা নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে ফলাও করে পোস্ট করা তো দূরের কথা! এমনকী, এই নিয়ে কোথাও কোনওরকম মন্তব্য করতেও নারাজ ছিলেন তিনি। এবারও তার অন্যথা হয়নি। তবে অভিনেত্রীর এক ফ্যানপেজের মাধ্যমেই জানা গেল তাঁর এই মহৎ উদ্যোগের কথা। একেবারে নিঃশব্দে এভাবেই মানুষের পাশে রয়েছেন প্রিয়াঙ্কা সরকার (Priyanka Sarkar)।

আরও পড়ুন: সুশান্তের মানসিক অবসাদ, চিকিৎসা, নেশা করা সম্বন্ধে সবই জানত পরিবার! চাঞ্চল্যকর চ্যাট প্রকাশ্যে