বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ‘ধর্ষণ’, আইনি বিপাকে কঙ্গনা রানাউতের ব্যক্তিগত দেহরক্ষী

কুমার হেগড়ে নামে ওই দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে সরব আন্ধেরির এক বিউটিশিয়ান। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের পাশাপাশি প্রতারণা এবং বিকৃত যৌনাচারের কথাও বলেছেন ওই মহিলা।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

এবার আইনি বিপাকে কঙ্গনা রানাউতের (Kangana Ranaut) ব্যক্তিগত দেহরক্ষী। কুমার হেগড়ে নামে ওই দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে সরব আন্ধেরির এক বিউটিশিয়ান। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের পাশাপাশি প্রতারণা এবং বিকৃত যৌনাচারের কথাও বলেছেন ওই মহিলা।নির্যাতিতার অভিযোগ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দিনের পর দিন তাঁর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেছেন অভিযুক্ত। এই সম্পর্কে ইতিমধ্যেই ডিএন নগর পুলিশ থানায় মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিতা।

আরও পড়ুন: ‘আপনাকে ছাড়া বাঁচব না দিদি’, মমতার কাছে ক্ষমা চেয়ে তৃণমূলে ফেরার ইচ্ছাপ্রকাশ সোনালি গুহর

ওই নির্যাতিতার বয়ান অনুযায়ী, প্রায় আট বছর ধরে কুমার হেগড়েকে (Kumar Hedge) চেনেন তিনি। গত বছর জুন মাসে কুমার ওই মহিলাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। অভিযোগ, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে একাধিকবার তাঁর সঙ্গে যৌন সম্পর্কও তৈরি হয় কুমারের। গত ২৭ এপ্রিল নির্যাতিতার কাছ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকাও নেন তিনি। তারপর আর ওই মহিলার সঙ্গে কোনও যোগাযোগ রাখেননি কুমার।

ইতিমধ্যে অন্য এক বন্ধুর মাধ্যমে ওই বিউটিশিয়ান জানতে পারেন কুমার তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে চান না। তার ঠিক বেশ কয়েকদিন পর এক মহিলা নিজেকে কুমারের মা পরিচয় দিয়ে ওই মহিলাকে ফোন করেন। কুমারের অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয়েছে বলেও জানান। তাই কুমারের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতেও বারণ করে দেন ফোনের অপরপ্রান্তের ওই মহিলা। এরপরই লিভ ইন পার্টনারের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ জানানোর সিদ্ধান্ত নেন ওই মহিলা।

অভিযোগের ভিত্তিতে গত ১৯ মে কুমার হেগড়ের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে মুম্বই পুলিশ। পেপিংমুন ডট কমের একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, আট বছরের পরিচয় কুমার ও নির্যাতিতার। গত বছর জুন মাসে মহিলার কাছে বিয়ের প্রস্তাব রেখেছিলেন অভিযুক্ত বডিগার্ড। এরপরই একাধিকবার নির্যাতিতার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করে সে।

প্রতারণার অভিযোগে ৪২০ ধারাতেও ধৃতের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তবে এখনও গ্রেপ্তার হয়নি কুমার হেগড়ে। ব্যক্তিগত দেহরক্ষী হওয়ায় একাধিকবার কুমার হেগড়ের সঙ্গে দেখা গিয়েছে কঙ্গনা রানাউতকে। এমনকী কুমারের জন্মদিন উদযাপন করতেও দেখা গিয়েছে অভিনেত্রীকে। তবে ব্যক্তিগত দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে মুখ খোলেননি কঙ্গনা রানাউত। অভিযুক্তের তরফেও মেলেনি কোনও প্রতিক্রিয়া।

আরও পড়ুন: স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই একমাত্র সমাধান : বাইডেন

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest