নেতাজিকে নিয়ে ভুল তথ্যের অভিযোগ, ‘গুমনামি বাবা’কে রুখতে আইনি চিঠি সৃজিতকে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেস্ক: বৃহস্পতিবারই স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তি পেয়েছে ‘গুমনামি’র প্রথম টিজার। অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের ‘গুমনামি’ লুকের ভূয়সী প্রশংসা করেছে নেটিজেনরা। আবার নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যের মতো একটি বিতর্কিত বিষয়বস্তুকে ঘিরে ছবি তৈরির জন্য ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে বেজায় প্রশংসিতও হয়েছেন পরিচালক সৃজিত। তবে এর মাঝেই ঘটল বিপত্তি। ‘গুমনামি’র জন্য আইনি নোটিস পেলেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়।

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু সম্পর্কে তথ্য বিকৃত না করার আর্জি জানিয়ে ওই বাংলা ছবির পরিচালক ও প্রযোজক সংস্থার কর্ণধারকে আইনজীবীর চিঠি পাঠালেন ফরওয়ার্ড ব্লকের নেতা দেবব্রত রায়। সেন্সর বোর্ডের কাছেও তাঁর আবেদন, ছবিটিকে যাতে ছাড়পত্র না দেওয়া হয়।

দেবব্রতবাবুর আইনজীবী প্রদীপ কুমার রায় ছবির পরিচালক ও প্রযোজককে পাঠানো চিঠিতে লিখেছেন, ‘গুমনামি বাবা’র সঙ্গে নেতাজির কোনও সম্পর্ক নেই। মনোজ মুখোপাধ্যায় কমিশনের নির্দেশে ডিএনএ পরীক্ষাতেও স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল, উত্তরপ্রদেশের ‘গুমনামি বাবা’ আর নেতাজি এক নন, তাঁদের মধ্যে কোনও সম্পর্কও নেই। এমতাবস্থায় নেতাজির নামে ভাবাবেগ উস্কে এমন ছবি দেখানো হলে তথ্য বিকৃতি হবে এবং নেতাজির ‘সম্মানহানি’ হবে বলে ফ ব নেতার অভিযোগ। এর পরেও ছবিটি দেখানো হলে তাঁরা আইনি পথে যেতে দ্বারস্থ হবেন বলে জানানো হয়েছে আইনজীবীর চিঠিতে।

তবে সৃজিতের ছবি ‘গুমনামি’ নিয়ে বিতর্ক এই প্রথম নয়। এর আগে আপত্তি তুলেছিলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর প্রপৌত্র চন্দ্র বসুও। তিনিও তোপ দেগেছিলেন পরিচালকের বিরুদ্ধে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest