সামাজিক মাধ্যমে খোলামেলা ছবি, নেট পাড়ার কুকথার মুখে মধুমিতা…

টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রীকে যেভাবে কটাক্ষ করা হয়,তা দেখে নেট জনতার মধ্যে জোরদার আলোচনা শুরু হয়ে যায়।

ফেসবুকে ট্রোলড হলেন অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার। ছবি তোলার ধরন থেকে উন্মুক্ত বক্ষ বিভাজিকা, সব কিছু নিয়েই তাঁকে কটাক্ষের তিরে বিঁধলেন নেটাগরিকদের একাংশ।

গত সোমবার ফেসবুকে একটি নিজস্বী পোস্ট করেন মধুমিতা। ইতিমধ্যেই তাতে ২৫ হাজারের বেশি কমেন্ট এবং ৩০০-র উপর শেয়ার। অভিনেত্রীর পরনে ছিল হাতকাটা, ডিপ নেক টপ, গলায় সরু স্কার্ফ। স্পষ্ট তাঁর বিভাজিকা।

ছবি পোস্ট হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই অশ্লীল মন্তব্যে তাঁর কমেন্ট বক্স ভর্তি। একজন লিখলেন, ‘এই ছবির জন্য পেজ আনলাইক দিলাম। দিনে দুপুরে ভয় পেয়ে গিয়েছি।’ অন্য একজন প্রশ্ন করলেন, ‘মিডিয়াতে কাজ করছ তাও কেন এমন পোজ? আর কত প্রোডাকশন এবং ডিরেক্টরের অ্যাটেনশন লাগবে তোমার?’। আরেক নেটাগরিক আবার ছবি তোলার ভঙ্গি নিয়েও কটাক্ষ করে বললেন, ‘আমি ভাবলাম কেউ ফাঁসি লেগে ঝুলে পড়ে আছে, পরে দেখলাম মধুমিতা।’

আরও পড়ুন: আর্থিক প্রতারণার মামলা দায়ের হল সানি লিওনের বিরুদ্ধে

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিকবার বিভিন্ন কুকথার মুখে পড়তে হয়েছে মধুমিতাকে। কখনও ব্যক্তিগত সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন করা হয় তাঁকে, আবার কখনও অভিনেত্রীর ছবির নীচে একের পর এক অশ্লীল মন্তব্য জুড়ে দেওয়া হয়। যদিও একের পর এক সমালোচনা এবং কটাক্ষের মুখে পড়েও এ বিষয়ে পালটা কোনও মন্তব্য করতে দেখা যায়নি মধুমিতা সরকারকে।

প্রসঙ্গত মধুমিতা সরকারই প্রথম অভিনেত্রী নন, যাঁকে সামাজিক মাধ্যমে আক্রমণ এবং কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়। টলিউড থেকে বলিউড, বিভিন্ন সময় তারকারা নেট পাড়ার মানুষের আক্রমণের মুখে পড়েন বিভিন্নভাবে। সে করিনা কাপুর খান হোক কিংবা ঐশ্বর্য রাই বচ্চন বা আলিয়া ভাট, বিভিন্ন সময় নায়িকাদের আক্রমণের মুখে পড়তে হয়। এক নাগাড়ে নেটিজেনদের একাংশের মানুষের আক্রমণের মুখে পড়ে, ইনস্টাগ্রামে কমেন্ট সেকশন বন্ধ করে দেন আলিয়া, করিনারা।

আরও পড়ুন: প্রয়াত ‘রাম তেরি গঙ্গা মৈলি’ খ্যাত অভিনেতা রাজীব কাপুর, শোকের ছায়া বলিউডে