‘যৌন হেনস্থার জন্য কর্মরতা মহিলারাই’, মুকেশ খান্নার মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

শক্তিমান হয়ে নব্বইয়ের দশকে ভারতীয় দর্শকদের মনে রাজ করেছেন মুকেশ খান্না। ছেলে-মেয়ে নির্বিষে সকলেই শক্তিমানের ভক্ত। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু থেকে সম্প্রতি কপিল শর্মার শো নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করে মাসখানেক ধরেই সংবাদ শিরোনামে এই বর্ষীয়ান শিল্পী। এবার মিটু আন্দোলন নিয়ে উদ্ভূট এবং ‘নারীবিদ্বেষী’ তত্ত্ব খাড়া করলেন অভিনেতা। #MeToo-র জন্য দায়ী কর্মরতা মহিলারাই’, সম্প্রতি এমন মন্তব্য করে শোরগোল ফেলে দিয়েছেন অভিনেতা মুকেশ খান্না।

মুকেশ খান্নার সাম্প্রতিক এক সাক্ষাত্কারের ক্লিপিং সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। ফিল্মি চর্চাকে দেওয়া সেই সাক্ষাত্কারে মুকেশ খান্না বলছেন- ‘মেয়েদের কাজ হল সংসারের দায়িত্ব সামলানো। ক্ষমা করবেন সেটা আমিও আজকাল মাঝেমাঝে ভুলে যাই। মিটু নামের সমস্যা কোথা থেকে শুরু হয়েছে জানেন যবে থেকে মেয়েরা কাজ করতে শুরু করেছে। আজ মেয়েরা ছেলেদের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সবেতে টক্কর দেওয়ার চেষ্টা করে’।

আরও পড়ুন: প্রয়াত হলিউডের প্রথম ‘জেমস বন্ড’ শন কনারি

https://twitter.com/Hindutva__watch/status/1321974625950076928?ref_src=twsrc%5Etfw%7Ctwcamp%5Etweetembed%7Ctwterm%5E1321974625950076928%7Ctwgr%5Eshare_3&ref_url=https%3A%2F%2Fbangla.hindustantimes.com%2Fentertainment%2Fmukesh-khanna-says-metoo-problem-happened-because-women-started-working-men-and-women-are-not-equal-31604136358811.html

মেয়েরা বাইরে কাজ করে বলেই নাকি বাড়িতে ছেলেমেয়েদের প্রতি মনোযোগ দিতে পারে না, সন্তানরা এতে সমস্যায় পরে, যোগ করেন মুকেশ খান্না। টুইটারে এই মন্তব্য নিয়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।’প্ল্যাটফর্ম পেলে নোংরা মানসিকতার মানুষরা এমনই কথা বলে’, মন্তব্য নেটিজেনদের। কেউ আবার লিখেছেন- শক্তিমানের সবচেয়ে বড় দুর্বলতা যে তাঁর মানসিকতা সেটা জানতাম না’।

নেটিজেনদের মতে আমাদের তথাকথিত পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থার ফসল এই নারীবিদ্বেষী মনো। এরা শুধু পর্দাতেই সুপারহিরো হতে পারে, তবে বাস্তবটা এক্কেবারে আলাদা। দ্রুত এই ধরণের মানসিকতা ঝেরে ফেলেটা খুব জরুরি, বলছেন নেট নাগরিকরা।

আরও পড়ুন: বয়সের ফারাক থেকে নকল সাজপোশাক, বিয়ের পরেই ট্রোলের মুখে নেহা-রোহনপ্রীত

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest