SOS KOLKATA: লকডাউন পরবর্তী সিনেমায় ‘রাফ অ্যান্ড টাফ’ লুকে ধরা দিলেন নুসরত! সঙ্গে হ্যান্ডসম যশ

লকডাউনের পর টেলিপাড়ার শুটিং শুরু হয়ে গিয়েছে এবার শুধু হল বাংলা ছবির শুটিং। নুসরত, মিমি ও যশের হাত ধরেই শুরু হল যাত্রা। এসওএস কলকাতা ছবির শুটিং হল। প্রথমদিনেই শুটিং করলেন নুসরত জাহান ও যশ। পরে এলেন মিমি।তাছাড়া সাংসদ হওয়ার পর একসঙ্গে এই প্রথমবার বড়পর্দায় আসতে চলেছেন মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহান। কৌতুহল যে পারদ চড়বে তা তো স্বাভাবিক।

অংশুমান প্রত্যুষের ‘এসওএস কলকাতা’র শুটিংয়ের প্রথমদিনেই একেবারে অন্যরকম লুকে দেখা গেল নুসরতকে। রহস্য-রোমাঞ্চে ভরা এই ছবিতে অ্যান্টি টেররিজ়ম স্কোয়াড নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। নুসরতের চরিত্রটাও যে আলাদা তা বোঝা গেল সাজেই।

260782 1073835611116250006177653353335777662606639o
ছবি : প্রত্যুষ প্রোডাকশনের ফেসবুক পেজ

 

‘রাফ অ্যান্ড টাফ’ লুকে নুসরত! গল্প আর সেটের আবহ দেখেই মনে হল কোনও পুলিশ অফিসার কিংবা গোয়েন্দার ভূমিকায় ধরা দেবেন নুসরত। আর ‘এসওএস কলকাতা’ সিনেমায় নিজের নতুন লুক নিয়ে কিন্তু বেশ উচ্ছ্বসিত সাংসদ-অভিনেত্রী! নুসরতের মন্তব্য, “একেবারে ভিন্ন স্বাদের ছবি। আমার লুকটাও একেবারে নতুন। আশা করি, দর্শকরা আমার এই নতুন অবতার পছন্দ করবেন। আর এতদিন বাদে শুটিং ফ্লোরে ফিরতে পেরে ভাল তো লাগছেই!”

nunsrat in line

শুটিং ফ্লোরে নুসরতের সঙ্গে ক্যামেরায় ধরা দিলেন ছবির নায়ক যশ দাশগুপ্তও (Yash Dasgupta)। অভিনেতার মন্তব্য, “লকডাউনের কারণে দীর্ঘদিন গৃহবন্দি থেকে কাজের খিদেটা বেড়েছে। পুরনো সবার সঙ্গে দেখা হয়ে মনটাও ভাল হয়ে গেল। SOS Kolkata’র চিত্রনাট্য অন্য রকম। আশা করি, ভাল লাগবে দর্শকদের।” হাজারও ব্যস্ততার থাকলেও মাস্ক, স্যানিটাইজার ব্যবহারের কড়া নির্দেশিকা কিন্তু অক্ষরে অক্ষরে পালন করা হচ্ছে। সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইউনিটের কলাকুশলীদের সংখ্যা মোট চল্লিশ জন। সব মিলিয়ে একেবারে অচেনা একটা আবহ! আর তার মাঝেই শট বুঝে নিচ্ছেন অভিনেত্রী নুসরত জাহান।

প্রথমদিনের শুটিংয়ে যশ-নুসরত থাকলেও ছিলেন না মিমি। দ্বিতীয় দিন থেকে ফ্লোরে দেখা গেল তাঁকেও।

https://www.instagram.com/p/CCcozYRJ2zD/

 

মিমি-নুসরত, যশ ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করছেন প্রযোজক এনা খোদ এবং শান্তিলাল মুখোপাধ্যায়ও। পরিস্থিতি ঠিক থাকলে চলতি বছরের পুজোতেই মুক্তি পাবে ‘এসওএস কলকাতা’। দেখা গেল ইন্ডাস্ট্রির সবথেকে নবীন এবং কনিষ্ঠ প্রযোজক অভিনেত্রী এনা সাহাকেও। এনা বলছিলেন,”পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে SOS KOLKATA মুক্তি পাবে পুজোর সময়। এত দিন তো শুধু অভিনয়টাই করেছি। এবার তো নতুন ভূমিকায়। তাই দায়িত্বটাও বেশি। সিন না থাকলেও প্রতিদিন ফ্লোরে আসছি। সবার সঙ্গে কথা বলছি। ইউনিটের সবার খোঁজখবর নিচ্ছি।”

Sos kolkata1