Shah Rukh Khan goes to meet son Aryan Khan lodged at Arthur Road prison in Mumbai

Aryan Khan Drug Case: আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়ে আর্থার রোড জেলে SRK, দেখা করলেন ছেলের সঙ্গে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আরিয়ান খান গ্রেফতার হওয়ার পর এই প্রথম প্রকাশ্যে শাহরুখ খান। বৃহস্পতিবার সকালে মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলে ছেলের সঙ্গে দেখা করলেন কিং খান।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা নাগাদ মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলে পৌঁছন শাহরুখ। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আইনজীবীদের একটি দল। জেলের ভিতর প্রায় ১৫ মিনিট ছিলেন শাহরুখ। দ্রুত সাক্ষাৎ সেরে বেরিয়ে যান তিনি। তাঁর সঙ্গেই ফেরত যায় আইনজীবীদের দলটিও। ছেলের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়টি আড়ালেই রাখতে চেয়েছিলেন শাহরুখ। যে কারণে বড় কনভয় বা বড় গাড়ি নিয়ে তিনি আর্থার রোড জেলে যাননি। তিনি পৌঁছন একটি ছোট গাড়িতে। গাড়ির কাচ কালো। তখনও দেশের বাণিজ্যনগরীতে অফিস টাইম ঠিকঠাক শুরু হয়নি।

তবে শাহরুখের আসার খবর আগে থেকেই পেয়ে গিয়েছিল সংবাদমাধ্যমের একাংশ। ফলে তারা আর্থার রোড জেলের মূল ফটকের বাইরে ভিড় করেছিল। জমায়েত ছিল জেলের প্রহরীদেরও। আর্থার রোড জেলটি মুম্বই শহরের মধ্যেই।  শহরের মধ্যে একটি ব্যস্ত রাস্তার উপর ওই জেলের ফটকে অল্প লোক জমায়েত হলেই তা ভিড়ের চেহারা নেয়। বৃহস্পতিবার সকালেও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

জেলের মূল ফটকের সামনেই গাড়ির পিছনের আসন থেকে নামেন শাহরুখ। পরণে খুব সাধারণ একটি গোল-গলা টি-শার্ট এবং জিনসের ট্রাউজার্স। মুখ ঢাকা কালো মাস্কে। চোখে কালো রোদচশমা। মাথার লম্বা চুল পনিটেলে বাঁধা। দেহরক্ষী পরিবৃত হয়ে তিনি দ্রুত জেলের ভিতরে চলে যান।

প্রশাসনের অনুমতির ভিত্তিতে সাধারণত এই ধরনের সাক্ষাৎ ৫ থেকে ১০ মিনিটের হয়ে থাকে। শাহরুখ জেলের ভিতরে ছিলেন প্রায় ১৫ মিনিট। তবে ওই সময়ের পুরোটাই তিনি আরিয়ানের সঙ্গে ছিলেন, এমন কথা হলফ করে বলা যাচ্ছে না। কারণ, বিভিন্ন ঔপচারিকতা মেটাতেও খানিকটা সময় লাগে। সূত্রের খবর, বুধবারেই জেল কর্তৃপক্ষের থেকে পুত্রের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেয়েছিলেন শাহরুখ। সেই মতো বেলা গড়ানোর আগেই তিনি পৌঁছন জেলে।

আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করে জেল থেকে বেরোনর পর শাহরুখ সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খোলেননি। যেমন মুখ খোলেননি ভিতরে যাওয়ার সময়েও। লম্বা-চওড়া চেহারার দেহরক্ষী তাঁকে ঘিরে দ্রুত গাড়িতে তুলে দেন। অনতিবিলম্বে জেলচত্বর ছেড়ে যান শাহরুখ। তাঁর সঙ্গে বেরিয়ে যায় তাঁর আইনজীবীর দলও।

এনসিবি ৩ অক্টোবর গ্রোফতার করে আরিয়ানকে। তারপর এনসিবি কাস্টেডিতে থাকার সময় একবার ছেলের সঙ্গে দেখা করেছিলেন শাহরুখ খান। তারপর ভিডিও কলেও কথা হয়েছিল তাঁদের আর্থার রোডে আসার পর। শাহরুখ-গৌরীর ফোন পেয়ে নাকি কেঁদে ফেলেছিলেন আরিয়ান।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest