ঘোষণার পরও আটকে গেল লকডাউন পরবর্তী প্রথম বাংলা ছবির শুটিং

The News Nest: তৃণমূল সাংসদ ও টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান ও মিমি চক্রবর্তী। ২০১৮ সালে ‘ক্রিসক্রস’ সিনেমায় সর্বশেষ একসঙ্গে কাজ করেন তারা। এর মধ্যে দুজনেই রাজনীতির মাঠে একসঙ্গে নামেন। শুধু তাই নয়, বসিরহাট ও যাদবপুর থেকে সাংসদও নির্বাচিত হন তারা। এরপর আর কোনো সিনেমায় একসঙ্গে দেখা যায়নি তাদের। এবার দুই সাংসদ এক সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন। এ খবর নুসরত নিজেই জানিয়েছিলেন।

আজ থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল লকডাউন পরবর্তী প্রথম বাংলা ছবির শুটিং। ‘এসওএস কলকাতা’। কিন্তু তা শুরু করতে পারলেন না পরিচালক অংশুমান প্রত্যুষ। আটকে যাওয়ার কারণ প্রসঙ্গে পরিচালক বললেন, ‘‘শিল্পী ও টেকনিশিয়ানদের এককালীন ২৫ লাখ টাকার বিমা করিয়েছি। শুটিং ফ্লোর স্যানিটাইজ়, আর্টিস্টদের ডেট নিয়েও আজ শুটিং শুরু করা গেল না। অতিমারির কারণে তৈরি এসওপি’তে ইমপা ও ফেডারেশনের সাইন করতে সময় লাগছে।’’

আরও পড়ুন: কালো পোশাকে নুসরত ঠিক যেন ‘রাতপরী’, ভাইরাল ‘বাথটাব’ ফটোশ্যুট

https://www.instagram.com/p/CCIY9k5hK7D/

১ জুলাই এই ছবির মহরত হওয়ার পর আজ থেকে শুটিং শুরুর কথা পাকা হয়। ১১ জুন থেকে সিরিয়াল, সিরিজ়ের শুটিংয়ের অনুমতি মিললেও, ছবির শুটিংয়ের এসওপি তৈরি হতে এত সময় লাগছে কেন? ইমপার সভাপতি পিয়া সেনগুপ্ত বললেন, ‘‘কোভিড–১৯ যে ভাবে ছড়াচ্ছে, তাতে ঝুঁকি নিয়েই ছবির কাজ শুরু হবে। শুটিংয়ের অনুমতি দেওয়ার আগে প্রতিটি বিষয় খুঁটিয়ে বিচার করেই এসওপি-তে সই করতে চাই। ওদের শুটিংয়ের ডেট পাকা করার আগে আমাদের জানানো দরকার ছিল। নতুন প্রযোজনা সংস্থা বলেই অভিজ্ঞতা কম।’’

 

https://www.instagram.com/p/CCMCpxSgu2b/

যৌথ প্রযোজনায় তৈরি এই ছবিতে, অংশুমান ছাড়াও প্রযোজক হিসেবে ডেবিউ করছেন অভিনেত্রী এনা সাহা।  এসওপি’তে সই হতে দেরি হওয়ার পিছনে অন্য কারণও শোনা যাচ্ছে। কোনও এক শক্তিশালী প্রযোজক সংস্থা নাকি চায় না ছবির শুটিং শুরু হোক। নতুন প্রযোজনা সংস্থার মনোবল ভেঙে দেওয়া, লগ্নিকারীকে হাতিয়ে নেওয়ার মতো ঘটনা ইন্ডাস্ট্রিতে আকছার ঘটে। আরও শোনা গিয়েছে, নুসরত শুটিং শুরুর জন্য অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

আরও পড়ুন: মাতৃবিয়োগের পরদিনই শুটিংয়ে কাঞ্চন মল্লিক, অভিনেতাকে কুর্নিশ টলিপাড়ার