Indian Idol 12: ‘মি টু’ কলঙ্কিত অনু মালিক ফের ‘ইন্ডিয়ান আইডল’-এ, শো বাতিলের দাবি সোনার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

২০১৯ সালে সুরকার ও গায়ক অনু মালিকের ওপর ‘মি টু’-র অভিযোগ এনেছিলেন গায়িকা সোনা মহাপাত্র। তারপর অনুকে ওই মিউজিক রিয়েলিটি শো-এর বিচারকের আসন থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। ২০২১-এ ফের তাঁকে বিচারকের আসনে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। আর তা নিয়েই ক্ষোভ প্রকাশ করলেন। সে সময় শুধু সোনা মহাপাত্র নয়, অনু মালিকের বিরুদ্ধে ‘মি টু’-র অভিযোগ এনেছিলেন নেহা ভাসিন ও শ্বেতা পণ্ডিতও।

নেটমাধ্যম বলছে, মঙ্গলবার সোনার এই প্রতিবাদ আপাতত সবার নজরে। সূত্র বলছে, টুইটে ‘ইন্ডিয়ান আইডল’, ‘সোনি টিভি’, ‘অনু মালিক’ এবং ‘মি টু’-কে হ্যাশট্যাগে রেখে জানানো হয় যৌন হেনস্থাকারী হিসেবে চিহ্নিত অনু মালিক জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো-এর বিচারকের আসনে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে আবার বসছেন। একই মঞ্চে বিচারকের আসনে দেখা যাচ্ছে সোনা মহাপাত্রকেও।

আরও পড়ুন: নাসিকের ‘ড্রাগ পার্টি’ থেকে গ্রেফতার ২২, রয়েছেন এক বিগবস প্রতিযোগীও

নিজের টুইটে সোনাকে ট্যাগও করেন ওই ব্যক্তি। যার নিজের অ্যাকাউন্টে শেয়ার করে সোনা লেখেন, ‘trash loves trash’। অর্থাৎ, ‘নোংরা’ ইন্ডিয়ান আইডলের পছন্দ ‘নোংরা’ অনু মালিককে! এর পরেই সেই টুইট নিজের সামাজিক পাতায় ভাগ করে নিয়ে কণ্ঠশিল্পী জানান, এই শো এবং ওই ব্যক্তিকে অবিলম্বে বাতিল করা উচিত।

প্রসঙ্গত, বলিউডে ‘মি টু’ আন্দোলন শুরু হতেই অনু মালিকের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন শ্বেতা পণ্ডিত, নেহা ভাসিন এবং সোনা মহাপাত্র। একাধিক অভিযোগ ওঠায় সেই সময় ‘ইন্ডিয়ান আইডল’-এর বিচারকের আসন থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। কিছুদিন পরে সেই ‘অভিযোগ’ নিয়ে নেটমাধ্যমে একটি দীর্ঘ বার্তাও শেয়ার করেছিলেন অনু। প্রায় দু’বছর তাঁকে দেখা যায়নি এই শোয়ে। চলতি সিজন থেকে তিনি বসেছেন বিচারকের আসনে আরও একবার।

আরও পড়ুন: ফুসফুসে সংক্রমণ, হাসপাতালে ভর্তি নাসিরুদ্দিন শাহ, জানুন কেমন আছেন অভিনেতা?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest