‘প্রসেনজিতের সঙ্গে ঋতুর প্রেম, তাই নায়িকার চরিত্র পাইনি’, এবার নেপোটিজম অভিযোগে বিদ্ধ টলিউড

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

The News Nest: বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির জঘন্য রাজনীতি ও পক্ষপাতদুষ্টের কথা সামনে আসছে। বলিউডের অনেক তারকা এসব নিয়ে অবসাদে ভুগেছেন বলেও জানিয়েছেন।

সুশান্তর আত্মহত্যার প্রভাব টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতেও পড়েছে। বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে লাইভে এসে ডিপ্রেশন নিয়েও আলোচনা করলেন তিনি। তিনি বলেন, “ডিপ্রেশন আছে থাকবে। এটাকে নিয়ে আমি বহু বছর ধরে ফাইট করছি। করব। আমি আত্মহত্যাপ্রবণ নই। একটা সময় ছিলাম।”

শ্রীলেখা জানাচ্ছেন পেশাদার জীবন ও ব্যক্তিগত জীবনে তিনি যখন একা হয়ে গিয়েছিলেন তখন আত্মহত্যাপ্রবণ হয়েছিলেন। কখনোই আপোষ করতে পারেননি এবং ঠিক ভাবে মিশতে পারেননি বলে এই পরিণতি হয়েছিল বলে জানান তিনি। ইন্ডাস্ট্রিতে একটা পাওয়ার গেম চলে বলে জানান শ্রীলেখা। তিনি বলেন, “যে প্রযোজক-পরিচালক বা স্বনামধন্য নায়কের কাছে ক্ষমতা আছে তিনি তাঁর ব্যবহার করেন। সুন্দরী মহিলারা যদি নিজেদের অস্তিত্বের জন্য লড়তে থাকে সেটা যেন ইন্ডাস্ট্রি মেনে নিতে পারে না। তাই প্রথম দিন থেকেই আমি মিস ফিট ছিলাম।”

https://www.instagram.com/p/CAPYQsHpEpO/

শ্রীলেখা বলছেন “প্রথমদিকে আমি নায়িকার কোনও চরিত্র পাইনি। তখন ইন্ডাস্ট্রিতে এক নম্বরে ছিলেন বুম্বাদা অর্থাৎ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তখন বোনের চরিত্র করেছি। সেকেন্ড লিড করেছি। যদিও আমি জানতাম আমি নায়িকা হওয়ার যোগ্য। কিন্তু সেই সময় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের সঙ্গে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের প্রেম। পরে সুপারহিট হল ‘অন্নদাতা’। পরের ছবিতে সাইন করার কিছু দিন পর জানলাম বাদ পড়ার কথা। ছবির হিরোর সঙ্গে যিনি প্রেম করছেন, তাঁকেই নেওয়ায় দাবি এসেছে।’’ 

আরও পড়ুন: সরি সুশান্ত…এখনও তোমাকে শান্তিতে ঘুমাতে দিচ্ছে না কেউ ! ক্ষোভ উগরে দিলেন স্বস্তিকা

‘পার্টিবাজ’ প্রযোজক-পরিচালকের সঙ্গে ডিনারে যাননি, বিশেষ সময় কাটাননি বলেই অভিনেত্রীকে শেষ মুহূর্তে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে অনেক ছবি থেকেই। মনখারাপ হলেও মনোবল ভাঙেনি শ্রীলেখার।”শ্রীলেখা বলছেন, তাই ইন্ডাস্ট্রিতে টিকে থাকতে তখন সেকেন্ড লিড বা সাইড ক্যারেক্টার বা টেলিভিশন ধারাবাহিকে কাজ করতে হয়েছে। কিন্তু টেলিভিশনে বেশি ভালো কাজ পাচ্ছিলেন তিনি। সেই তুলনায় বড় পর্দায় সেভাবে ভালো কাজ পাচ্ছিলেন না। তাই স্থায়ীভাবে তখন টেলিভিশনে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেন শ্রীলেখা।

সৃজিত মুখোপাধ্যায়কে নিয়েও শ্রীলেখা কথা বলেছেন। অভিনেত্রী বলছেন, “আমি জানি সৃজিত লাইভ ভিডিওটা দেখছে। সৃজিত একসময় আমার খুব ভালো বন্ধু ছিল। কিন্তু যখন ছবি করল তখন আর আমাকে ডাকেনি। হয়তো আমার মত কোনও চরিত্র ছিল না। স্বস্তিকার মতনই চরিত্রগুলো ছিল। তখন স্বস্তিকার সঙ্গে আসলে সৃজিতের একটা প্রেম চলছিল।আমার মুনমুন সেন, অপর্ণা সেনের মত কোনও মা নেই। আমার রঞ্জিত মল্লিক, সন্তু মুখোপাধ্যায়ের মত কোনও বাবাও নেই।” তার কথায়, “নেপোটিজম ছিল, রয়েছে এবং থাকবে।”

শ্রীলেখা বলছেন শুধু সিনেমা নয় সিরিয়ালেও এরকম হয়েছে। “অঞ্জনা বসু এবং গার্গী রায়চৌধুরী সঙ্গে প্রযোজকের প্রেম হয়েছিল বলে আমার সিরিয়ালের অংশ অনেক কমে গিয়েছিল। আমি জানি আজকের লাইভ এর পরে আমাকে আবার এক ঘরে করে দেওয়া হবে।”

রইল শ্রীলেখার সেই ভিডিও:

আরও পড়ুন: খোঁজ মিলল নয়া সূত্রের? সাত ঘন্টা পর থানা থেকে বের হলেন রীহা

Gmail 3

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest