খুনের তত্ত্ব ওড়াল না AIIMS! সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্টে কি মিলল বিষক্রিয়ার প্রমাণ?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের উপর বিষপ্রয়োগ করা হয়েছিল, এমন কোনও প্রমাণ মেলেনি। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই-কে দেওয়া রিপোর্টে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস (এমস)এমনটাই জানিয়েছে।

গত ১৪ জুন বান্দ্রার বাড়ি থেকে অভিনেতার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধারের পর থেকেই তাঁর মৃত্যুর কারণ নিয়ে নানা জল্পনা চলছিল। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে মুম্বই পুলিশ জানিয়েছিল সুশান্ত আত্মহত্যাই করেছেন। কিন্তু বিষপ্রয়োগ করে তাঁকে মেরে ফেলা হয়ে থাকতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন সুশান্তের পরিবার ও অনুরাগীরা।

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সিবিআই বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে। অভিনেতার ভিসেরা পরীক্ষা করে মৃত্যুর কারণ নির্ধারণের দায়িত্ব পড়ে এমসের কাঁধে। গোয়েন্দা সূত্রে খবর, সম্প্রতি সিবিআইয়ের হাতে ভিসেরা পরীক্ষার রিপোর্ট তুলে দিয়েছে এমস। তাতে সাফ জানানো হয়েছে, অভিনেতার উপর বিষপ্রয়োগের কোনও প্রমাণ মেলেনি।

টাইমস নাওয়ের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে এইএমস টিমের তৈরি সুশান্তের ভিসেরা রিপোর্টে প্রয়াত তারকার শরীরে কোনও অর্গানিক বিষের নমুনা মেলেনি। তবে সুশান্তের ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বিস্তর গাফিলতি রয়েছে তা জানিয়েছেন এইএমসের বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন: নাটকীয়! ফের একবার স্বামীর সঙ্গে সংসার পাততে তৈরি পুনম পাণ্ডে

এইএমসের ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ টিমের নেতৃত্বে ছিলেন সংস্থার ফরেনসিক ডিপার্টমেন্টের প্রধান ডঃ সুধীর গুপ্তা। সোমবার নয়া দিল্লিতে সিবিআইয়ের বিশেষ তদন্তকারী দলের সঙ্গে ম্যারাথন বৈঠক হয় এইএমসের ফরেনসিক এক্সপার্টদের।

টাইমস নাও নিজেদের সূত্র মারফত জানতে পেরেছে, এইএমসের ফরেনসিক টিম জানিয়েছে ভিসেরাতে কোনওরকম অর্গানিক (জৈব) বিষ মেলেনি। তাই আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার ধারাতেই (৩০৬) সুশান্ত মামলার তদন্তকে এগিয়ে নিয়ে যাবে সিবিআই। তবে সুশান্তের ময়না তদন্ত কী কারণে রাতের অন্ধকারে কম আলোতে করা হয়েছে তা নিয়ে হয়রান এইএমসের টিম। কেন এই রিপোর্টে উল্লেখ নেই সুশান্তের মৃত্যুর সময় তাও পরিষ্কার নয়।

১৪ জুন মুম্বইয়ের অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্তের দেহ। ঘটনার পর ১০৪ দিন অতিক্রান্ত। তবে ‘জাস্টিট ফর সুশান্ত’ আন্দোলন এখনও থামছে না সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুরুতেই মুম্বই পুলিশ এই মামলাকে আত্মহত্যা বলে দাবি করেছিল। তবে অনুরাগীদের দাবি এই মৃত্যুর পিছনে রয়েছে অপর কোনও রহস্য। পরে পরিবারের তরফেও সুশান্তের আত্মহত্যার তত্ত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। গত ৪২ দিন ধরে সিবিআইয়ের বিশেষ তদন্তকারী দল এই মামলার তদন্ত চালাচ্ছে। সোমবার সিবিআইয়ের তরফে চাপের মুখে পড়ে দ্বিতীয়বার প্রেস বিবৃতি দেওয়া হয়। ৩৮ শব্দের সেই বিবৃতি সিবিআই জানায়- পেশাদার ভাবে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (সিবিআই)। এই মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত প্রত্যেকটি বিষয় খতিয়ে দেখাচ্ছে, এবং কোনওরকম সম্ভাবনাই আমাদের তরফে উড়িয়ে দেওয়া হয়নি আজকের তারিখ পর্যন্ত। তদন্ত জারি রয়েছে….’

এই মামলার তদন্ত নিয়ে ডঃ গুপ্তা সংবাদ সংস্থা এএনআইকে জানান- সুশান্ত মামলার কিছু লিগ্যাল বিষয় এখনও খতিয়ে দেখতে তবে একটা লজিক্যাল পরিসমাপ্তিতে পৌঁছানোর জন্য। এই মামলায় এইএমস টিম এবং সিবিআইয়ের ধারণা এখনও পর্যন্ত আলাদা নয়। তিন আশ্বাস দেন- ‘এই রিপোর্ট এক্কেবারে নিশ্চিত হবে’। অর্থাত্ এই রিপোর্ট স্পষ্টতই বলে দেবে এই মামলা সুইসাইড নাকি হোমিসাইড (খুন)।

আরও পড়ুন: টেমসের তীরে নতুন করে নিজেকে ‘অনুসন্ধান’ করছেন প্রিয়াঙ্কা!

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest