অস্বস্তিতে বলিউড! সুশান্ত মামলায় ২ মাদক পাচারকারীকে গ্রেফতার করল NCB

সুশান্ত মামলার সূত্র ধরে বলিউডের বড়সড় ড্রাগচক্রের রহস্যভেদ করতে উঠেপড়ে লেগেছে এনসিবি। মঙ্গলবার চার মাদক পাচারকারীকে হেফাজতে নেয় এনসিবি। যার মধ্যে ২ জন মাদক পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো।

জায়েদ ভিলাট্রা এবং আবদুল বাসিত পারিহার নামের দুই মাদক পাচারকারীকে বান্দ্রা থেকে গ্রেফতার করেছে এনসিবি। দুজনের সঙ্গেই সরাসরি যোগ রয়েছে রিয়া চক্রবর্তী ও শৌভিক চক্রবর্তীর। আবদুল বসিতের সঙ্গে ড্রাগের আদানপ্রদান নিয়ে স্যামুয়েল মিরান্ডার কথোপকথন ইতিমধ্যেই সিবিআই,এনসিবির হাতে রয়েছে। শৌভিক চক্রবর্তীর কল ডিলেটস রেকর্ডেও নাম রয়েছে জায়েদ ভিলাট্রার।

আরও পড়ুন: ‘রসোরেমে কৌন থা’ জানিয়ে দিলেন খোদ গোপী বহু, ছোট পর্দায় ফিরছে সাথ নিভানা সাথিয়া ২

 

সূত্রের খবর, দুইজনের মধ্যে একজন মেনে নিয়েছে শৌভিক চক্রবর্তী ৫ গ্রাম ড্রাগ কেনার জন্য ১০ হাজার টাকা দিয়েছিল। এদিন সকাল ১১টা নাগাদ এই দুই মাদক ব্যবসায়ীর মেডিকাল পরীক্ষা করাবে এনসিবি। এরপর তাদের আদালতে পেশ করা হবে। এই মামলায় শীঘ্রই শৌভিক চক্রবর্তীকে সমন পাঠাবে এনসিবি।

রিয়া চক্রবর্তীর মাদক যোগের সূত্র ধরে এনসিবির নজরে রয়েছে চারজন হাই প্রোফাইল ব্যক্তিত্ব, যার মধ্যে রয়েছেন মহারাষ্ট্রের দুজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, একজন নামী অভিনেতা ও একজন পরিচালক। সূত্রের খবর, চিঙ্কু পাঠান নামের একজন মাদক ব্যবসায়ী নাকি মুম্বইয়ের ফিল্ম সেটেও ড্রাগ বিক্রি করে থাকে। এছাড়াও ইম্মা নামের আরও এক মাদক ব্যবসায়ীর নাম সামনে এসেছে। বান্দ্রা এলাকাটি নাকি তাঁর জিম্মায় রয়েছে।

সিবিআই এর হাতে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু তদন্তের ভর সিবিআই এর হাতে যাওয়ার পরই জোরদার হয়েছে মাদক রহস্য। তদন্তে বেশ কিছু জনকে জেরা করার পর অভিনেতার ড্রাগ নেওয়ার তথ্য সামনে আসে। সুশান্তের বাড়ির দুই কর্মী নীরজ আর দীপেশ সিবিআইকে জানিয়েছিলেন গাঁজা খেতেন অভিনেতা। কিন্তু ছাড়তে চেয়েছিলেন মাদক।

আরও পড়ুন: সুশান্তের মানসিক অবসাদ, চিকিৎসা, নেশা করা সম্বন্ধে সবই জানত পরিবার! চাঞ্চল্যকর চ্যাট প্রকাশ্যে