ভিনরাজ্যে আটকে পড়া স্বর্ণশিল্পীদের বাঁচাতে একজোট টলিউড, ত্রাণ পাঠালেন নুসরত, মিমি, ঋতাভরী, রাজ, ঋতুপর্ণারা

করোনা আবহে বিপাকে সেই সমস্ত শিল্পীরা, যাঁরা দিনের পর দিন ধরে অলঙ্কার বানিয়ে আসছেন। অনেকেই কাজ হারিয়েছেন। বিক্রি কমায় স্বর্ণ কারিগরদের অনেকেরই কোনও রোজগার নেই।বর্তমান পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে বাংলার স্বর্ণকারদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল টলিউড।

গোটা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে রয়েছেন বাংলার স্বর্ণকারেরা। অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়নি বাড়ি ফেরা। তাই তাঁদের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিতে উদ্যোগ নিল টলিউড। নুসরত জাহান, মিমি চক্রবর্তী, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, ঋতাভরী চক্রবর্তী থেকে শুরু করে রাজ চক্রবর্তী, মীর আসরফ আলি, সাহেব চট্টোপাধ্যায়, অঙ্কুশ হাজরা, ঐন্দ্রিলা সেন, পার্নো মিত্র, হিরণ চট্টোপাধ্যায়ের উদ্যোগে গোটা দেশে ছড়িয়ে থাকা ৫০টি স্বর্ণশিল্পী সংস্থার কারিগরদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হল ত্রাণ।

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণ, রেখার বাংলো সিল করে এলাকাকে রেড জোন ঘোষণা করল মুম্বই প্রশাসন

প্রায় ২৫ লক্ষ স্বর্ণকার আটকে রয়েছেন ভিন রাজ্যে। দিল্লি, আমদাবাদ-সহ একাধিক জায়গায় আটকে থাকা স্বর্ণকারদের হাতে তুলে দেওয়া হল ত্রাণ। একটি সংস্থার মাধ্যমে ত্রাণ পৌঁছানোর উদ্যোগকে বাস্তবায়িত করলেন সাংসদ-অভিনেত্রী নুসরত, মিমি থেকে শুরু করে পরিচালক রাজ, অভিনেতা তথা রেডিও জকি মীর, ঋতুপর্ণা, ঋতাভরীরা। আজ,শনিবার সোশ্যাল মিডিয়া ও ইউটিউবে একটি ভিডিও পোস্ট করে এই উদ্যোগ সম্পর্কে জানান ঋতাভরী। ঋতাভরী বললেন, ‘লকডাউনে স্বর্ণশিল্পীদের দুরবস্থার কথা অনেকেই জানতে পারেননি। আমরা এই পরিস্থিতিতে গয়না কিনছি না। কিন্তু আমাদের জন্যই ভিনরাজ্যে আটকে রয়েছেন বহু শ্রমিক। তাদের কাছেই ত্রাণ পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করেছি আমরা।’

ভিডিও বার্তায় মিমি, নুসরত, ঋতুপর্ণা, পার্নো, ঐন্দ্রিলারা জানিয়েছেন, যে সমস্ত কারিগররা সারা বছর গয়না প্রস্তুত করে তাঁদের শোভা, ঔজ্জ্বল্য বাড়ান, করোনা আবহে তাঁরা সকলেই কম বেশি বিপাকে। কঠিন পরিস্থিতিতে সেই সমস্ত স্বর্ণকারদের দিকেই সাহায্যের হাত বাড়াল টলিউডের একাংশ।

আরও পড়ুন: স্বজনপোষণের নয়া ভার্সন? বচ্চনের নাতি অগস্ত্য নন্দাকে লঞ্চ করছেন করণ জোহর!