লকডাউনে রোজগার হারিয়ে আত্মঘাতী জনপ্রিয় টিভি অভিনেতা, অসহায় স্ত্রীর চিৎকার

ওয়েব ডেস্ক: লকডাউনে কাজ হারিয়ে ঋণের দায়ে জর্জরিত হয়ে আত্মঘাতী হলেন জনপ্রিয় টিভি অভিনেতা মনমীত গ্রেওয়াল। বয়েস হয়েছিল ৩২ বছর।

শুক্রবার রাতে তিনি তাঁর নভি মুম্বইয়ের আবাসনে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে মিড ডে সংবাদমাধ্যম। তাঁর স্ত্রী ও বাবা-মা রয়েছেন। আদত সে মজবুর, কূলদীপ প্রভৃতি বেশ কিছু সিরিয়ালে তিনি অভিনয় করে জনপ্রিয় হন।

মনমীতের বন্ধু মনজিত সিং জানিয়েছেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় স্বাভাবিক আচরণ করেছিলেন অভিনেতা। স্ত্রী রান্নাঘরে কাজে ব্যস্ত থাকার সময় নিজের ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন মনমীত। এর পর হঠাৎ চেয়ার উলটে পড়ার শব্দ শুনে ঘরে ঢুকে তাঁকে গলায় দোপাট্টার ফাঁস দিয়ে সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান অভিনেতার স্ত্রী।

আরও পড়ুন: ইয়াকুবের কোলে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ অমৃতের! রাস্তাতেই শেষ দুই পরিযায়ীর বন্ধুত্ব

স্বামীকে ফাঁস থেকে মুক্ত করার অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়ে চিৎকার করে সাহায্য চাইতে থাকেন মনমীতের স্ত্রী। প্রতিবেশীরা ছুটে এলেও তাঁর করোনা সংক্রমণ ঘটেছে ভেবে কেউ মনমীতকে ফাঁস থেকে মুক্ত করার জন্য এগিয়ে আসেননি। শেষে এক নিরাপত্তারক্ষী এসে ফাঁস খুলে দেহ উদ্ধার করেন।

বিগত কিছু সময় ধরে ঋণে ডুবে যাছিলেন তিনি ৷ সম্প্রতি বেশি কিছু টিভি ধারাবাহিকেরর মাধ্যমে সেই সমস্ত আতঙ্ক কম করার জন্য দ্রুততার সঙ্গে রোজগার করার চেষ্টা শুরু করেছিলেন ৷ এরই মাঝে করোনা বিপর্যয় ও লকডাউন যেন ভিতর থেকে তাঁকে ক্ষতবিক্ষত করে তুলেছিল ৷ তাঁর আর্থিক  অবস্থা অত্যন্ত খারাপ হতে থাকে, লড়াই করতে করতে ক্লান্ত হয়ে পড়েন, অবশেষে  সব লড়াই শেষ হয়ে যায় ৷

স্ত্রীর করুণ আর্তনাদেও কেউ পৌঁছে দেহ নামানোর চেষ্টা করেননি, মনমীতের নিথর দেহ অবশেষে নীচে নামানো হয়েছে পুলিশের সৌজন্যে, এসেছিলেন একটি চিকিৎসকের দলও ৷ এক ঘণ্টা পরে ঝুলন্ত দেহ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেছেন ৷ এক মুহূর্তেই যেন সমস্ত লড়াই, সমস্ত যন্ত্রণার অবসান হল ৷

আরও পড়ুন: ‘এসি ঘরে বসে ট্যুইট করে পরিযায়ী শ্রমিকদের সমব্যথী হওয়া যায় না’ বললেন সোনু সুদ

Gmail 2