কোন রঙে আপনাকে বেশি মানাবে? বোঝার জন্য মাথায় রাখুন এই টিপস…

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

সবাইকে সব রঙে মানায় না! স্কিনটোন অনুযায়ী অনেক সময় রং নির্ধারন করে পোশাক পরতে হয়। ভুল রঙের পোশাক পরলে কখনও মানানসই লাগবে না। অন্যদিকে সঠিক রঙের পোশাক পরলে নিজেকে অনেক আত্মবিশ্বাসী করে তুলতে পারবেন।

ফ্যাশন স্টাইলিস্টরা সাধারণত স্কিন টোন অনুযায়ী পোশাকের রং বাছাই করেন। আপনার স্কিনটোন অনুযায়ী কোন রঙের পোশাক পরবেন তা সহজেই বুঝে নিন কয়েকটি কৌশলে-

কালার অ্যানালিসিস করা

কালার অ্যানালিসিস বা রং বিশ্লেষণ হলো কোনো ব্যক্তির ত্বকের বর্ণ, চোখের রং এবং চুলের রঙের সঙ্গে পোশাক এবং মেকআপ শেডগুলোর রংগুলো মিলিয়ে তা নির্ধারণ করার একটি পদ্ধতি। সংক্ষেপে বলতে গেলে, স্কিন টোন ব্যবহার করে আপনি বুঝতে পারবেন, যে আপনি ওয়ার্ম না কুল এবং সমগ্র কালারিং অর্থাৎ আপনার ত্বক কতটা ডার্ক বা লাইট তা নির্ধারণ করতে পারবেন।

কোন রং আপনার প্রিয় সেটার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো কোন রঙে আপনাকে মানাচ্ছে? আপনার শরীরে কোন রঙগুলো ভালো দেখাচ্ছে, তা জানতে হবে আপনাকেই। কারণ ভুল রঙের পোশাক পরলে আপনার চেহারার সৌন্দর্যতা কমে যাবে এবং সমগ্র লুকটাকে নষ্ট করে দিতে পারে।

কীভাবে রঙ বাছবেন?

আপনার আন্ডারটোন নির্ধারণ করুন। আপনার ত্বক যতই কালো বা ফর্সা হোক না কেন, ত্বকের আন্ডারটোনটি হয় কুল/শীতল বা ওয়ার্ম/ উষ্ণ। আর তা না হলে নিরপেক্ষ হবে। তবে আপনি কোন দলে আছেন তা নির্ধারণের কয়েকটি উপায় জেনে নিন-

আপনার কব্জি কাছের শিরাগুলি দেখুন। আপনার ত্বক যদি পর্যাপ্ত মাত্রায় হালকা হয়ে থাকে ও ত্বকের নীচে শিরাগুলো যদি নীল বা সবুজ দেখায়; তাহলে বুঝবেন কুল আন্ডারটোন। আর না হলে আপনার ওয়ার্ম আন্ডারটোন।

সোনা না-কি রূপাতে মানাবে?

রূপালি গয়না কুল আন্ডারটোনের সঙ্গে ভাল দেখায়। আর সোনার গয়না সাধারণত ওয়ার্ম আন্ডারটোনে বেশি ভালো লাগে। ঠিক তেমনই কালো বা সাদা রংটি কুল আন্ডারটোনে বেশি মানায়। অন্যদিকে আইভোরি বা ব্রাউনের কোনো শেড বা ব্রাউন রঙের পোশাক ওয়ার্ম আন্ডারটোনকে ইঙ্গিত করে।

আরও পড়ুন: আপনার পছন্দের সাদা পোশাকের যত্ন নিতে মনে রাখুন এই ১০ টিপস…

আন্ডারটোন অনুসারে কোন রং মানানসই?

কুল আন্ডারটোন

বেগুনি রং: এক্ষেত্রে আপনার সঙ্গে যেকোনো জুয়েল টোন (যেমন- উজ্জ্বল নীল, বেগুনি, সবুজ, হলুদ ইত্যাদি), কুল গ্রে, ক্রিস্প ওয়াইট এবং যেকোনো সি-শেড (সি-ব্লু, সি-গ্রিন) খুব ভালো দেখাবে।

ওয়ার্ম আন্ডারটোন

যেকোনও আর্থ টোন কালার যেমন কমলা, হলুদ, হালকা তামাটে এবং অফ হোয়াইট রং আপনার ওপর দেখতে বেশ সুন্দর লাগে।

আপনার ত্বকের সঙ্গে সূর্যের প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করুন

শীতল আন্ডারটোনযুক্ত লোকেরা উষ্ণ আন্ডারটোনযুক্ত ব্যক্তিদের চেয়ে খুব সহজে সানবার্ন হয়ে যায়, সেখানে ওয়ার্ম আন্ডারটোনযুক্ত ব্যক্তিরা সূর্য়ালোকে কেবল কালো হয়ে যান।

নিউট্রাল আন্ডারটোনে

যদি কুল বা ওয়ার্ম কোন আন্ডারটোন আপনার, তা যদি না বুঝতে পারেন; তাহলে বুঝতে হবে যে আপনি নিউট্রাল আন্ডারটোনে পড়েন, এ ধরণের মানুষের সঙ্গে প্রায় সব রং মানানসই হয়।

বর্ণমালার বিভিন্ন রঙ কিন্তু আপনার সঙ্গে মানানসই হতে পারে। তবে উজ্জ্বল রঙ বাছার ক্ষেত্রে আপনাকে একটু সতর্ক থাকতে হবে। এ ছাড়াও লাল, টিল কালার, গাঢ় বেগুনি এসব রং কমবেশি সবাইকে পরলেই সুন্দর দেখায়।

আরও পড়ুন: ৭০-এর দশকের শিল্পার গ্ল্যামারাস শাড়ি লুক, ট্রাই করতে পারেন আপনিও!

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest