এবার কি তবে সত্যিই দেশে ফেরানো হচ্ছে বিজয় মালিয়াকে ? তৎপর সিবিআই

লন্ডন: পলাতক শিল্পপতি বিজয় মালিয়াকে যে কোনও সময়েই ভারতে নিয়ে আসা হবে। এমনটাই দাবি করেছে সংবাদসংস্থা আইএএনএস। জানা গিয়েছে ইংল্যান্ড থেকে মুম্বই বিমানবন্দরে মালিয়াকে নিয়ে নামবেন ভারতীয় তদন্তকারীরা। বিলেতে পালিয়েও শেষরক্ষা হল না। দীর্ঘদিন ধরে চলা আইনি প্রক্রিয়ার শেষে বিজয় মালিয়াকে দেশে নিয়ে আসার ছাড়পত্র পেল ভারতীয় তদন্তকারী সংস্থা।

৬৩ বছরের শিল্পপতি বিজয় মালিয়ার বিরুদ্ধে
অভিযোগ, তিনি ভারতের বিভিন্ন ব্যাঙ্ক থেকে ন’হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পালিয়ে যান। তিনি নিজে অবশ্য অনেকবারই বলেছেন, সুযোগ পেলেই সব ঋণ শোধ করে দেবেন। কিন্তু তাঁকে ‘পলাতক অর্থনৈতিক অপরাধী’ ঘোষণা করার জন্য আদালতে আবেদন জানায় এনফোর্সমেন্ট ডায়রেক্টরেট (ইডি)।

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কের মধ্যেই রাশিয়ায় নয়া ত্রাস রক্তচোষা কীট!

এদিকে ঋণের ১০০ শতাংশই ভারত সরকারকে ফিরিয়ে দিতে চাইছেন বিজয় মালিয়া। পরিবর্তে তাঁর বিরুদ্ধে চলা মামলা বন্ধ করা হোক। কয়েকদিন আগেই কেন্দ্রের কাছে এই আবেদনই করলেন ‘পলাতক’ বিজয় মালিয়া।

কিংফিশার এয়ারলাইন্সের নামে বিভিন্ন ব্যাঙ্ক থেকে প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকার ঋণ নিয়েছিলেন তিনি। এরপর তা শোধ করতে না পেরে বিদেশে পালিয়ে যান সংস্থার তৎকালীন কর্ণধার বিজয় মালিয়া।

বিদেশের ৪০টি বাণিজ্যিক সংস্থার শেয়ার কিনতে ভারতের অন্তত ১৭ টি ব্যাংকের সঙ্গে প্রতারণা করেছে বিজয় মালিয়া। এই প্রতিটি ব্যাংক থেকে মোটা টাকার ঋণ নিয়ে তা আর পরিশোধ করেননি। গত ২০ এপ্রিল লন্ডনের আদালতে ভারতে প্রত্যার্পণ রুখতে করা মালিয়ার আবেদন খারিজ হয়ে যায়। পিট বাঁচাতে এবার ইংল্যান্ডের সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় কিংফিশারের মালিক। তবে বিধি বাম, সেখানেও হারতে হল তাঁকে।

আরও পড়ুন: ভারতে অ্যামাজন, নেটফ্লিক্স, গুগলের অনলাইন পণ্যে কেন বাড়তি শুল্ক ? তদন্ত করবে আমেরিকা

Gmail