সব সময় হাই ওঠে? সাবধান, হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হতে পারে!

পেটের উপরের অংশ, কাঁধ, পিঠ, গলা, দাঁত ও চোয়ালে হুট করে অতিরিক্ত ব্যথা হওয়া বা চাপ অনুভব অথবা আড়ষ্টতা অনুভব করাও হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আপনি জানেন কি, হার্ট অ্যাটাকের এক মাস আগে থেকেই দেহ কিছু সতর্কতা সংকেত দিতে শুরু করে। বিশেষজ্ঞরারা এরকম ৫টি লক্ষণের কথা বলছেন যেগুলো দেখা গেলে দ্রুত ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগের পরামর্শ দেন তারা। আসুন জেনে নেয়া যাক সে লক্ষণগুলো-

# অস্বাভাবিক রকমের শারীরিক দুর্বলতা: রক্তপ্রবাহ কমে গেলে এবং রক্ত চলাচল বাধাগ্রস্ত হলে এমনটা হয়। রক্তের শিরা-উপশিরাগুলোতে চর্বি জমে বাধা সৃষ্টি করলে এবং মাংসপেশী দুর্বল হয়ে পড়লে হৃদরোগের প্রধানতম এই লক্ষণটি দেখা দেয়।

# ঝিমুনি: দেহে রক্তের প্রবাহ কমে গেলে ঝিমুনিও দেখা দেয়। মস্তিষ্কে রক্ত প্রবাহ কমে গেলে ঝিমুনির সৃষ্টি হয়।চিকিত্‍সা বিজ্ঞান বলছে যে আমাদের কেন হাই ওঠে সেই প্রশ্নের মীমাংসা এখনও পুরোপুরি হয়নি। অনেকের মতে হাই তোলা ভেগাস নার্ভের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। এই নার্ভ সোজা আমাদের মস্তিষ্ক থেকে বেরিয়ে হৃদযন্ত্রণ এবং পাকস্থলীর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। অনেক সময় হার্টের ভেতরে রক্তক্ষরণ হলেও ঘন ঘন হাই ওঠে। স্ট্রোকের আগে এবং পরে বারবার হাই উঠতে পারে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে ওয়ার্ক আউট করতে করতে যাদের বারবার হাই ওঠে, তাঁদের হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি আছে।

আরও পড়ুন: শুধু স্বাদে অসামান্য নয়, শরীর ভালো রাখে গুড়, জানুন ১০ উপকারিতা…

# ঠাণ্ডা ঘাম: রক্তপ্রবাহ কমে গেলে দেহে ঘাম ঝরলে স্যাঁতসেঁতে ও ঠাণ্ডা ভাব অনুভূত হবে। অতিরিক্ত ঘাম হওয়া হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণ। বিশেষ করে ডায়াবেটিক রোগীদের ক্ষেত্রে বুকে ব্যথা হওয়া ছাড়াও অতিরিক্ত ঘাম, বুক ধড়ফড়, হঠাৎ শরীর খারাপ লাগতে শুরু করলে অব্যশই চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

# বুক ব্যথা: বুক, বাহু, পিঠ এবং কাঁধে ব্যথা অনুভূত হলে দ্রুত ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। বুকে ব্যথা এবং সংকোচন হৃদপিণ্ডের অসুস্থতার একটি বড় লক্ষণ। একাধিক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, হার্ট অ্যাটাকের আগে থেকে বেশিরভাগ আক্রান্তরই বদহজমের সমস্যা এবং গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল সমস্যা দেখা দেয়। কোনও কারণ ছাড়াই মাথা ঘোরানো, বমি বমি ভাব এবং বমি করার বিষয়গুলি অবহেলা করবেন না।

# শ্বাসকষ্ট: ফুসফুসে পর্যাপ্ত পরিমাণে অক্সিজেন এবং রক্ত সরবরাহ না হলে এই ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। হার্টের সমস্যা থাকলে ফুসফুসে রক্ত চলাচল কমে যায়। আর শ্বাসকষ্ট বা শ্বাস ছোট হয়ে আসার মতো সমস্যা দেখা যায়। শুধু বুকে ব্যথাই নয়, শরীরের অন্যান্য বিশেষ কিছু অঙ্গে ব্যথা অনুভব হওয়াও হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। পেটের উপরের অংশ, কাঁধ, পিঠ, গলা, দাঁত ও চোয়ালে হুট করে অতিরিক্ত ব্যথা হওয়া বা চাপ অনুভব অথবা আড়ষ্টতা অনুভব করাও হতে পারে হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। তাই এই বিষয়গুলিকে মোটেই অবহেলা করবেন না।

আরও পড়ুন: নিমেষে কমবে ওজন! ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন এই ৬টি পানীয়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest