অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন রোজ ডিনারে এক টুকরো ডার্ক চকোলেট খান। তাই এবার থেকে হোয়াইট বা মিল্ক চকোলেটের বদলে ডার্ক চকোলেট কিনতে পারেন নিজের জন্য। এমনকী বর্তমানে ডায়েটিশিয়ানরাও রোজ এক টুকরো ডার্ক চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকে। এতে কোকো, ফাইবার এবং পরিমাণমতো খনিজ থাকে। ১০০ গ্রাম ডার্ক চকোলেট ৭০-৮৫ শতাংশ কোকো, ৬৭ শতাংশ আয়রন, ৫৮ শতাংশ ম্যাগনেশিয়াম, ৮৯ শতাংশ কপার এবং ৯৮ শতাংশ ম্যাঙ্গানিজে পরিপূর্ণ।

ডার্ক চকোলেটে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট মানবদেহে ভিটামিন-ই-এর চাহিদা পূরণ করে। এতে থাকে ক্যাফিন রক্তচাপ বাড়াতে সাহায্য করে। তাই যারা লো ব্লাড প্রেসারের সমস্যায় ভুগছেন তাঁদের জন্যও এটি বেশ উপকারী। সঙ্গে এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে।

আরও পড়ুন: স্যালাইন দিয়েই করোনা পরীক্ষা, তিন ঘণ্টায় ফল

যারা হার্ট বা কোলেস্টেরলের সমস্যায় ভুগছেন তারাও ডার্ক চকোলেট খেতে পারেন। এটি শরীরে গুড কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায়। দিনে এক টুকরো করে ডার্ক চকোলেট খেলে স্ট্রোকেরও ঝুঁকি কমে।

ডার্ক চকোলেট তৈরির মূল উপাদান কোকোয়া ফ্লাভিনয়েড। যা ত্বককে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি থেকে রক্ষা করে। সঙ্গে ডার্ক চকোলেট স্ট্রেস বাস্টার। তাই মন খারাপ থাকলে চোখ বুজে কামড় বসান ডার্ক চকোলেটে। কিন্তু, তা বলে বেশি নয়!

এটি ব্রেনের জন্যও বেশ উপকারী। মস্তিষ্কে রক্ত চলাচল ভালো রাখে। তাই ১০ বছরের ওপরের বাচ্চাদের দিতে পারেন ডার্ক চকোলেট। তবে, তার আগে অবশ্যই আপনার শিশুর চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নেবেন।

আরও পড়ুন: World Bicycle Day 2021: সাইকেল চালালে সারবে যেসব কঠিন রোগ

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *