পুরনো কার্ড- বাতিল কাপড় পরে আছে কোণে? ঘর সাজিয়ে ফেলুন বাতিল জিনিস দিয়েই

বাতিল জিনিস মানেই যে ফেলনা নয়, এটা এক প্রমাণিত কথা।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ঘর সাজবে বাতিল জিনিসে, এই ধারণাটার সাথে আগেই পরিচিতি আছে নিশ্চয়? বিভিন্ন সময়ে হরেক রকম বাতিল জিনিস দিয়ে টুকিটাকি জিনিস বানানো দেখে থাকবেন। যার কিছু কেবল ঘরের শোভাবর্ধন করে আবার কিছু আপনি দিব্যি কাজে লাগাতে পারেন দরকারে। বাতিল জিনিস মানেই যে ফেলনা নয়, এটা এক প্রমাণিত কথা।

বাতিল হয়ে যাওয়া কোন কোন জিনিস দিয়ে কী কী নতুন সামগ্রী বানিয়ে নেওয়া যায় এক নজরে দেখে ফেলুন আর ঘরে বাতিলের খাতায় যা সব আছে, কাজে লাগিয়ে ফেলুনঃ

প্লাস্টিক বা কাঁচের বোতল

  • অব্যবহৃত কাঁচের বোতলে তৈরি হতে পারে দারুণ ফুলদানী। বোতলের গায়ে গ্লাস পেইন্টিং করে কিছু এঁকে নিলে আরো সুন্দর হয়ে যাবে সেটা, চেষ্টা করে দেখতে পারেন কিন্তু। নিজ হাতে বানানো নতুন ফুলদানী ঘরের শোভা বাড়াবে।
  • প্লাস্টিকের বোতলে বানিয়ে নেওয়া যায় কলমদানী, কিংবা সাজের আয়নার তাকে রাখা টুকিটাকি জিনিসগুলো গুছিয়ে রাখার পাত্র, অর্থাৎ ক্লিপ, পিন এসবের হোল্ডার। প্লাস্টিকের বোতল কাজে লাগতে পারে ঘরে রাখার ছোট গাছের টব হিসেবেও।

পুরনো কার্ড

নেমন্তন্নের কার্ড ঘরে জমানো থেকে যায় অনেকের। দেখবেন হয়তো অনেকগুলো কার্ড জমে গেছে আপনার ঘরেও, হরেক রঙের হরেক ঢঙের। ফেলে না দিয়ে এইগুলোও কাজে লাগানো যায়। এইসব কার্ডে তৈরি হতে পারে চমৎকার ফটোফ্রেম। আবার বাক্স বানানোর কাজেও ব্যবহৃত হতে পারে কার্ডের শক্ত আবরণ।

গয়না যখন কাজের জিনিস

বাতিল চুড়িরও আছে বেশ কার্যকরী ভূমিকা। কলমদানী হিসেবে চুড়ি কাজে লাগাতে পারেন খানিক নান্দনিক উপায়ে। অনেকগুলো চুড়ি পরপর জুড়ে দিয়ে করতে হয় এটা। এই জিনিস ব্যবহার করতে পারেন যেকোন কিছু গুছিয়ে রাখতে, তা সে কলম-পেন্সিল হোক অথবা আপনার ব্যান্ড-ক্লিপ।

বাতিল কাপড়ের নতুন রূপ

আর ব্যবহার করা হবে না তেমন কাপড়গুলো একেবারে বাতিল না করে বরং রেখে দিন। অনেক কাজের জিনিস বানিয়ে ফেলা যায় পুরনো কাপড়ে। বানাতে পারেন ফ্লোরম্যাট, বা টেবিলম্যাট। কাপড়ের ব্যাগও বানানো যায় একটু মোটা ধাঁচের কাপড়ে।

আরও পড়ুন: এই ঘরোয়া উপাদানগুলি মেশান ফুলদানির জলে, অনেক দিন টাটকা রাখুন গোলাপ – রজনীগন্ধা

কাগজের আছে শত ব্যবহার

  • কাগজ দিয়ে বানানো যায় এমন যে কত রকম জিনিসপাতি আছে তার সঠিক হিসেব মেলা কঠিন। হস্তশিল্পের এক দারুণ ক্ষেত্র অরিগ্যামি যা কিনা কাগজ দিয়ে হরেক রকম সামগ্রী বানাতে শেখায়।
  • কাগজের কার্ডের কথা সবার আগে আসবে, রঙিন কাগজ ঘরে থেকে থাকলে কখনো কার্ড বানানোর কাজে লেগে যাবে।
  • যেকোন পুরনো কাগজে বানাতে পারেন ফুল, পাতা এসব ঘর সাজানোর জিনিস। বড় কাগজের বাক্স থাকলে সেটা হতে পারে নতুন কোন স্টোরেজ বক্স।

মোমবাতির সাজ

ড্রয়ারের ভেতরে বহু পুরনো মোমের সন্ধান পেলে সেটা নতুন করে কাজে লাগানোর কথা ভাবতেই পারেন। আগুন জ্বালিয়ে নয়, বরং নতুন কোন রূপ দিয়ে। মোম দিয়ে তৈরি হতে পারে ফুল, দেখতে বেশ ভালো লাগে আর শো-পিস হিসেবে তো এমন একটা জিনিস চমৎকার হয়।

অকাজের সিডির ভিন্ন কাজ

পুরনো সিডির পাহাড় জমিয়েছেন ঘরে, তো হুট করে একদিন সব ফেলে না দিয়ে বরং একটা ফটোফ্রেম বানিয়ে ফেলুন। নতুন ফটোফ্রেমে পুরনো সিডির ব্যবহার কিন্তু দারুণ কার্যকরী।

আরও পড়ুন: দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা ফ্যান ও এসি চালুর আগে যা করবেন

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest