ICC Women’s T20 World Cup 2020: রূদ্ধশ্বাস ম্যাচে কিউয়িদের হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠল ভারত

মেলবোর্ন: টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের মহিলাদের দুর্দান্ত দৌড় চলছেই। বৃহস্পতিবার নিউজিল্যান্ডকে ৩ রানে হারিয়ে হরমনপ্রীতরা পৌঁছে গেলেন টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে। এ নিয়ে বিশ্বকাপে টানা তিনটি ম্যাচ জিতল ভারত। অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করেছিলেন স্মৃতি মান্ধানা-শেফালি ভার্মারা। দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশকে উড়িয়ে দেওয়ার পরে তৃতীয় ম্যাচেও ভারতের দাপট চলল।

এদিন টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নিউজিল্যান্ডের মহিলা দল।আগের দু’টি ম্যাচের মতো এ দিনও শুরুতেই ব্যাটে ঝড় তোলেন ভারতীয় মহিলা দলের ‘বীরেন্দ্র সহবাগ’ হিসেবে পরিচিতি পাওয়া শেফালি বর্মা। যদিও ব্যর্থ হন স্মৃতি মন্ধনা। চোট সারিয়ে ফিরে ১১ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি। তিন নম্বর ব্যাটার তানিয়া ভাটিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংসকে থিতু করেন শেফালি।

কিন্তু তানিয়া আউট হওয়ার পরেই লাইনচ্যুত হয়ে যায় ভারতীয় ব্যাটিং। এ দিনও রান পাননি অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌর। খুব মোক্ষম একটা সময়ে এসে ফর্ম হারিয়েছেন হরমন। তিনি রান পেলে ভারত এমনিতেই দেড়শো-১৬০ করে ফেলতে পারে।

শুধু হরমনপ্রীতই নন, এ দিন রান পাননি জেমিমা রডরিগেজ, দীপ্তি শর্মা এবং বেদা কৃষ্ণমূর্তি। শুধুমাত্র দুই লোয়ার অর্ডার ব্যাটার শিখা পাণ্ডে আর রাধা যাদবের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের সৌজন্যে ৮ উইকেটে ১৩৩ করে ভারত।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারতীয় স্পিনারদের বিরুদ্ধে হাত খুলতেই পারেননি নিউজিল্যান্ড। বিপক্ষের ব্যাটিংয়ের টুঁটি চেপে ধরে ভারত। তবে একটা সময়ে মনে হচ্ছিল ভারত অনায়াসে ম্যাচ জিতে যাবে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে নিউজিল্যান্ডের এমেলিয়া কারের ঝোড়ো ব্যাটিং হরমনদের ওপরে কিছুটা চাপ তৈরি করে দেয়। পুনম যাদব এ দিন চার ওভার হাত ধুরিয়ে ৩২ রান দেন। এর মধ্যে ১৮ রানই আসে ম্যাচের উনিশতম, অর্থাৎ পুনমের শেষ ওভারে।

শেষ ওভারে নিউজিল্যান্ডের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। কিউয়িদের হয়ে ক্রিজে ছিলেন টিকে যাওয়া আমেলিয়া কের এবং হেইলি জনসন। শেষ ওভারে জোড়া বাউন্ডারি হাকালেও তা জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না ব্ল্যাক ক্যাপসদের জন্য। সেই রান তাড়া করতে নেমে উত্তেজনা বাড়িয়ে ৩ রান আগে থেমে গেল কিউয়ি দল। ভারতীয় দলের একমাত্র পেসার শিখা পাণ্ডে, রান বাঁচিয়ে জয়ে এনে দেন দেশকে।রূদ্ধশ্বাস ম্যাচ শেষ ওভারে জিতে সেমিফাইনালে ভারত।

 ঝোড়ো ব্যাটিংয়ের জন্য এ দিনও ম্যাচের সেরার পুরস্কার পান শেফালি বর্মা।

এই জয়ের ফলে ভারত শেষ চারে উঠে গেল। তবে লিগে আরও একটি ম্যাচ বাকি ভারতের, শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে।