টিকাকরণ নিয়ে গত সপ্তাহেই সুপ্রিম কোর্টের প্রশ্নের মুখে পড়েছিল কেন্দ্র। তারপরই করোনাভাইরাসের টিকাকরণ নীতি নিয়ে টনক নড়ল নরেন্দ্র মোদী সরকারের। ১ জুন থেকে ১৮ উর্ধ্ব সব দেশবাসীকে বিনামূল্যে করোনা টিকা দেবে কেন্দ্র। সোমবার এই ঘোষণাই করলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। সেইসঙ্গে টিকাকরণের যাবতীয় ‘সাফল্য’ নিজেদের ঝুলিতে নিয়ে সব ‘ব্যর্থতা’ রাজ্যগুলির ঘাড়ে ঠেলতে কোনও কসুর ছাড়লেন না মোদী। বরং বেশিরভাগ সময় রাজ্যের ঘাড়ে দোষ চাপাতেই ব্যয় করলেন।

টিকার অভাব নিয়ে বিগত বেশ কয়েকদিন ধরে কেন্দ্রকে তোপ দাগছিল রাজ্যগুলি। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যগুলির ঘাড়েই টিকাকরণ নিয়ে দায় চাপানোর চেষ্টা করলেন প্রধানমন্ত্রী। এই প্রসঙ্গে এদিন তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন রাজ্যের থেকে বিভিন্ন রকমের দাবি করা হচ্ছিল টিকাকরণ নিয়ে। কেন লকডাউনের ক্ষমতা রাজ্যের হাতে দেওয়া হচ্ছে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছিল।’ মোদী বুঝিয়ে দেন, রাজ্যগুলির দাবির ভিত্তিতেই কেন্দ্র ধীরে ধীরে টিকাকরণের দায়িত্ব ছেড়ে দেয় রাজ্যগুলির হাতে।

আরও পড়ুন: মেহুল চোকসির প্রত্যর্পণ হচ্ছে না এখনই, খালি হাতে দেশে ফিরছে সিবিআই দল

প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘এপ্রিল পর্যন্ত কেন্দ্রের মাধ্যমে টিকাকরণ চলছিল। ভালোভাবে চলছিল। দেশের মানুষ অপেক্ষা করছিলেন। তারপর রাজ্যের তরফে বিভিন্ন দাবি করা হচ্ছিল। রাজ্যের হাতে টিকাকরণের ক্ষমতা দেওয়া হচ্ছে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। চিন্তাভাবনার করা হয়। তো আমরা ভাবলাম ২৫ শতাংশ কাজ রাজ্যকে দেওয়া হোক।’ এছাড়া মোদী জানান, প্রতিটি ডোজের যা নির্ধারিত দাম থাকবে, তাতে সর্বাধিক ১৫০ টাকা সার্ভিস চার্জ বসানো যাবে। তিনি উল্লেখ করেন যে, ২১ জুন (PM Modi announced free Vaccination: PM Narendra Modi in his Speech today announced) থেকে দেশের সব নাগরিককে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেবে কেন্দ্র।

এদিন প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, ‘টিকা প্রস্তুতকারকদের থেকে ৭৫ শতাংশ টিকা কিনবে কেন্দ্র। বাকি ২৫ শতাংশ কিনতে পারবে বেসরকারি সংস্থাগুলি। রাজ্যগুলিকে বিনামূল্যে টিকা দেবে কেন্দ্র। ১৮ বছরের সকলে বিনামূল্যে টিকা পাবেন।’ মোদী আরও বলেন, ‘সম্প্রতি বিশেষজ্ঞরা বাচ্চাদের নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তা নিয়ে দুটি টিকার কাজ চলছে।’

আরও পড়ুন: Delhi: হিন্দি বা ইংরেজি ছাড়া অন্য ভাষায় কথা বললে শাস্তি, নির্দেশ দিল দিল্লির সরকারি হাসপাতাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *