ফের ড্রোনের দেখা উপত্যকায়, BSF-এর গুলিতে সীমান্তের ওপারে ফিরে যায় কোয়াডকপ্টারটি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ফের একবার জম্মুর আকাশে দেখা মিলল ড্রোনের। এই ড্রোনটিকে এদিন সীমান্তে উড়তে দেখা যায়। জম্মুর আরনিয়া সেক্টরে সেটিকে লক্ষ্য করে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালায় বিএসএফ জওয়ানরা। যার জেরে সীমান্ত পার করে পাকিস্তানে ফিরে যায় কোয়াডকপ্টারটি। জম্মু সীমান্তের দায়িত্বে থাকা বিএসএফ-এর আইজি এনএস জামওয়াল বলেন, ‘কোয়াডকপ্টারটি জিরো লাইন এবং সীমান্তের কাঁটা তারের বেড়ার মাঝের এাকায় উড়ছিল। তখন জওয়ানদের গুলিতে সেটি পাকিস্তানের দিকে ফিরে যায়।’

রবিবার জম্মুতে বায়ুসেনার বিমানঘাঁটিতে পরপর দুটি বিস্ফোরণ ঘটে। প্রথম বিস্ফোরণটি হয় ১টা ৩৭ মিনিটে, দ্বিতীয় বিস্ফোরণ ১টা ৪৩ মিনিটে। প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, শক্তিশালী ড্রোনের মাধ্যমেই বিস্ফোরক বয়ে আনা হয়েছিল। ঘটনায় আহত হন বায়ুসেনার দুই মার্শাল। বর্তমানে এনআইএ-র হাতে তদন্তভার তুলে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: হাওয়ালা কাণ্ডে ‘মিথ্যা’ বলেছেন ধনখড়, অভিযুক্তদের মুক্তির প্রমাণ চাইলেন সাংবাদিক

এরপর সোমবার থেকে পরপর বুধবার অবধি প্রতিদিনই জম্মুর বিভিন্ন সেনাঘাঁটির কাছে ড্রোন উড়তে দেখা যায়। কখনও কালুচক, আবার কখনও রত্নুচক এলাকায় মধ্যরাতে বা ভোররাতে ড্রোনের দেখা মিলছিল। সোমবারও দুটি ড্রোনকে গুলি করে নামানোর চেষ্টা করা হলেও তা পালিয়ে যায়।

এ দিন ভোর ৪টে ২৫ মিনিট নাগাদ একটি ছোট হেক্সাকপ্টারকে উড়তে দেখা যায় ভারত-পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্ত লাগোয়া আর্ণিয়া সেক্টরে। সীমান্তরক্ষী বাহিনীর নজর পড়তেই তা লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি চালানো হয়। সঙ্গে সঙ্গে পাকিস্তানে ফিরে যায় ড্রোনটি। বিএসএফের দাবি, ভারতের উপর নজরদারি চালাতেই বারবার সীমান্তের ও পার থেকে ড্রোন পাঠানো হচ্ছে।

আরও পড়ুন: ৮ মাসে রান্নার গ্যাসের দাম বেড়েছে ২৫০ টাকা, ‘মোদি থাকলেই সম্ভব’, খোঁচা চিদাম্বরমের

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest